• শনিবার, অক্টোবর ৩১, ২০২০

আইপিএল ইতিহাসের দ্রুতগতির ডেলিভারি ছুড়ে নর্তিয়ে বললেন ‘জানতাম না’

শোয়েব আখতার, ব্রেট লি, শেন বন্ডদের যুগে নিয়মিতই দেখা মিলতো ১৫৫ কিলোমিটার গতির ডেলিভারির। মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্স, জফরা আর্চার, ওয়াহাব রিয়াজরা ১৫০ কিমিতে বল করলেও ১৫৫ ছুঁতে পেরেছেন কমই। অনেকদিন পর দর্শকদের দেখার সুযোগ হলো ১৫৫ কিমি গতির ঝড়। চলমান আইপিএলে বুধবার রাতে বল হাতে গতির ঝড় তুলেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা পেসার এনরিখ নর্তিয়ে। ১৫৬.২ কিলোমিটারের ডেলিভারিতে এই প্রোটিয়া পেসার গড়েছেন আইপিএল ইতিহাসের দ্রুতগতিতে বল করার রেকর্ড। ইতিহাস গড়া ডেলিভারি যে তিনি করেছেন সেটা জানতেনই না দিল্লি ক্যাপিটাসের ২৬ বছর বয়সী পেসার। আগের রেকর্ডটিও ছিল আরেক প্রোটিয়া পেসারের। ২০১২ সালে ডেকান চার্জাসের হয়ে ১৫৪.৫ কিমি গতিতে বল করেছিলেন ডেল স্টেইন।

আইপিএলে নর্তিয়ে সুযোগ পেয়েছেন ইংলিশ অলরাউন্ডার ক্রিস ওকসের বদলি হিসেবে।

বিশ্বের সেরা ফ্র্যাঞ্চাইজি আসরে প্রথম সুযোগ পেয়েই গতির ঝড় তুলে আলোচনায়। নিয়মিতই ১৫০ কিমিতে বল করছেন। দুবাইয়ে বুধবার রাতে রাজস্থানের বিপক্ষে নর্তিয়ে ছাড়িয়ে নিজেকে গেছেন। রাজস্থান রয়্যালসের ইনিংসের তৃতীয় ওভারে নর্তিয়ের গতির ঝড়ে পাল্টা আক্রমণে বড় শট খেলছিলেন জস বাটলার। ১৪৮ কিমির প্রথম ডেলিভারিটি ছক্কা হাঁকান বাটলার। ১৫২ কিমি ছাড়ানো পরের দুই বলে আসে দুই সিঙ্গেল। দর্শনীয় র‌্যাম্প শটে বাউন্ডারিতে পাঠানো চতুর্থ বলটি ছিল ১৪৬.৪ কিলোমিটার গতির। পঞ্চম বলে রেকর্ড গড়া সেই ডেলিভারি। ১৫৬.২ কিলোমিটারের সেই বলটাকে আরেকটি চোখ ধাঁধানো শটে বাউন্ডারিতে পাঠান বাটলার। গতি আর আক্রমণের দ্বৈরথে জয়টা নর্তিয়ের। ১৫৫.১ কিলোমিটার গতিতে নর্তিয়ের করা ওভারের শেষ বলে স্ট্যাম্প উড়ে যায় বাটলারের।

৩৩ রানে ২ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা নর্তিয়ে বলেন, ‘আমি জানতাম না ১৫৬ কিমি গতিতে বল করেছি। জেনে ভাল লাগছে। দারুণ ব্যাট করছিল জস বাটলার। আমি নিজের শক্তির জায়গাতে অনড় ছিলাম। সফল হওয়ায় ভাল লাগছে।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x