• বুধবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯

বার্মিংহামে ব্রিটিশ মুসলিম স্কুলের হিফজ গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন

Posted on by

বার্মিংহাম প্রতিনিধি: ব্রিটেনের মুসলিম কমিউনিটির দীর্ঘ দিনের প্রত্যাশিত দ্বীনি খেদমতের অন্যতম প্রতিষ্ঠান ঐতিহ্যবাহী লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সে প্রতিষ্ঠিত দি ব্রিটিশ মুসলিম স্কুল প্রতিষ্ঠার দুই বছরের মধ্যেই ছাত্ররা পবিত্র কুরআনে হিফজ সম্পন্ন করতে সক্ষম হয়েছেন।হিফজ সম্পন্ন উপলক্ষে গত ১২ নভেম্বর মঙ্গলবার বিকেলে আস্টন বার্মিংহাম রয়েল স্যুট ব্যাংকুয়েটিং হলে এক গ্রাজুয়েশন সিরমনি অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে বার্মিংহামসহ যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহর থেকে মুসলিম নারী-পুরুষের আগমন অনুষ্ঠানকে মনোমুগ্ধকর করে তোলে। অনুষ্ঠানের শুরুতে শিক্ষার্থীদের কণ্ঠে মহাগ্রন্থ পবিত্র কুরআন শরীফ তেলাওয়াত উপস্থিতিদের মনে শান্তির পরশ বুলিয়ে দেয়।গ্রাজুয়েশন সিরিমনি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উস্তাজুল উলামা শায়খুল হাদিস, পীরে কামেল হযরত আল্লামা ইমাদ উদ্দিন চৌধুরী বড় ছাহেব কিবলাহ ফুলতলী এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ’র সম্মানিত সভাপতি আল্লামা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী।লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সের অন্যতম ট্রাস্টি আলহাজ নাছির আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন দি ব্রিটিশ মুসলিম স্কুলের ছাত্র নাবিল সালাম, আরমান আহমদ ও তানিম হাসান। নাশিদ পরিবেশন করেন দি ব্রিটিশ মুসলিম স্কুলের ছাত্র মাহিনুর রহমান, আহমদ রেজা কালিম ও শামসুদ্দোহা শিল্পী গোষ্ঠি।লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সের জয়েন্ট সেক্রেটারি মোঃ খুরশেদ উল হক ও গ্রাজুয়েশন সিরিমনি বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব মাওলানা মোঃ আব্দুল মুনিমের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সের চেয়ারম্যান প্রিন্সিপাল মাওলানা এম এ কাদির আল হাসান।

এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন লন্ডন দারুল হাদিস লতিফিয়ার প্রিন্সিপাল মাওলানা মোহাম্মদ হাসান চৌধুরী, বাংলাদেশ স্কুল অব এক্সেলেন্সের প্রিন্সিপাল মাওলানা গুফরান আহমদ চৌধুরী, নর্থওয়েস্ট দারুল হাদিস লতিফিয়ার প্রিন্সিপাল মাওলানা সালমান আহমদ চৌধুরী, ইউকে আনজুমানে আল ইসলাহ’র জয়েন্ট সেক্রেটারি মাওলানা ফরিদ আহমদ চৌধুরী, বার্মিংহাম সিরাজাম মুনিরা এডুকেশন সেন্টারের পরিচালক হাফিজ সাব্বির আহমদ , ইউকে আনজুমানে আল ইসলাহ’র প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা খায়রুল হুদা খান, লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সের অন্যতম ফাউন্ডার আলহাজ আহমেদ উল হক এমবিই, গ্রাজুয়েশন সিরমনি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক মাওলানা রফিক আহমদ, লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সের অন্যতম ফাউন্ডার মেম্বার আলহাজ মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, মোহাম্মদ আব্দুল ইকবাল, সেক্রেটারি মোঃ মিসবাউর রহমান, মাওলানা রুকনুদ্দীন আহমদ, মুফতি রফিক আহমদ, মাওলানা নোমান আহমদ, মাওলানা আতিকুর রহমান, মাওলানা নুরুল আমিন, মোঃ এমদাদ হোসাইন, মাস্টার আব্দুল মুহিত, মাওলানা মোঃ হুসাম উদ্দিন আল হুমায়দী, মাওলানা বদরুল হক খান, মাওলানা নুরুজ্জামান, মাওলানা এনামুল হাসান সাবির, মুফতি তাজুল ইসলাম, মাওলানা নুরুল ইসলাম, মাওলানা গুলজার আহমদ, মাওলানা মাহবুব কামাল, মাওলানা মাহফুজুল হাসান খান মিল্লাত, হাফিজ আলী হোসেন বাবুল, হাফিজ কবির আহমদ, হাফিজ রুমেল আহমদ, মাওলানা এহসানুল হক, হাফিজ আবুল কালাম, মোঃ মাসুক আহমদ, হাফিজ মাসুম আহমদ, মোঃ আব্দুল হাই, মোঃ শাহজাহান, হাজী আমিরুল ইসলাম জামাল, মোঃ সাইফুল আলম প্রমুখ।প্রধান অতিথির বক্তব্যে হযরত আল্লামা ইমাদ উদ্দিন চৌধুরী ফুলতলী বলেন, মানুষ আশরাফুল মাখলুকাত অর্থাৎ, সৃষ্টির সেরা জীব। মানুষকে পথভ্রষ্ট করার জন্য শয়তান সব সময় চেষ্টা চালায়। এই শয়তানের কুমন্ত্রণা থেকে বাঁচতে হলে আল্লাহর জিকির করতে হবে। আল্লাহর জিকিরের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে পবিত্র কুরআন শরীফ তেলাওয়াত। তিনি বলেন, ব্রিটেনে কুরআনে হাফেজ তৈরি হচ্ছে এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত গৌরবের বিষয়। দ্বীনের শিক্ষা অর্জনের পাশাপাশি সাধারণ শিক্ষায়ও এসব ছাত্রছাত্রীরা পারদর্শীতা অর্জন করছে। তিনি শিক্ষার্থীদের মাতাপিতাকে অত্যন্ত ভাগ্যবান বলে অভিহিত করেন। তিনি আরো বলেন, পবিত্র কুরআন শরীফের হাফেজগণের মর্যাদা আল্লাহর নিকট অনেক বেশি। তাঁরা কেয়ামতের দিন তাঁদের মা-বাবাসহ আত্মীয়-স্বজনের সুপারিশকারী হয়ে জান্নাতে নিয়ে যাবেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথি মুবারক হস্তে গ্রাজুয়েটদের পাগড়ি এবং সার্টিফিকেট প্রদান করেন।পরিশেষে বিশেষ তরবিয়ত ও মুনাজাতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।

Leave a Reply

More News from uk

More News

Developed by: TechLoge

x