• বুধবার, অক্টোবর ২৮, ২০২০

বিবেকবান মানুষ রায়কে ফরমায়েশি বলে মানবে না: ওবায়দুল কাদের

Posted on by

নিউজ লাইফ ডেস্কঃ একুশে আগস্টের খুনের দায়ে দণ্ডিত রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ড.কামাল,বি চৌধুরী কোন নৈতিকতায় ঐক্য প্রক্রিয়ায় অংশ নিয়েছেন,এমন প্রশ্ন রেখেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে সড়ক পরিবহণ অধিদপ্তরের এক অনুষ্ঠানে এ প্রশ্ন রাখেন তিনি।ওবায়দুল কাদের বলেন,বাংলাদেশের রাজনীতি কি খুনি দন্ডিত আত্মস্বীকৃত দূর্নীতিবাজদের হাতে ন্যস্ত হবে? আমার বিশ্বাস এই জাতীয় ঐক্য বাংলাদেশের জনগণ কোনোদিনও মেনে নেবে না। এই ধরণের জাতীয় ঐক্য যারা করে,তারা কত নীতি নৈতিকতাহীন দেওলিয়া রাজনৈতিক দল,তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

১৫ই আগস্ট এবং ২১শে আগস্ট একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা এবং একই সুত্রে গাঁথা বলেও দাবি করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলাকে ফরমায়েশি রায় বলায় এর তীব্র সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন,ফখরুল সাহেব যা ইচ্ছে তাই বলছেন,তিনি বলছেন এই রায় ফরমায়েশি রায়? সাংবাদিকদের প্রতি প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন,আপনারাই বলুন,এই রায় কি ফরমায়েশি রায়? বাংলাদেশের বিবেক আছে এমন একজন মানুষ কি বলবে এই রায় ফরমায়েশি?

একটা ভবঘুরে ছেলেকে রাস্তা থেকে ধরে এনে জজ মিয়া নাটক সাঁজানো হলো,ইতিহাস কি বলে এটা ফরমায়েশি রায়? ২৪ জনের প্রাণ চলে গেছে এটা ফরমায়েশি রায়? প্রধান টার্গেট শেখ হাসিনা একটা কানের শ্রবণ শক্তি হারিয়ে ফেলেছেন এটা কি ফরমায়েশি রায়? মুফতি হান্নান নিজেই বলেছে তারেক রহমানের নির্দেশে হামলা চালানো হয়েছে এটা কি ফরমায়েশি রায়? খুনি তাজউদ্দিনকে নিরাপদে বিদেশে পাঠানো হলো এটা কি ফরমায়েশি রায়?’সাংবাদিকদের কাছে একের পর এক প্রশ্ন রাখেন কাদের।তখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী নিজে, তিনি কি দায় এড়াতে পারেন? এটা কি ফরমায়েশি রায়? যে গ্রেনেডগুলো অবিস্ফোরিত সেগুলো কেন ধংস করা হলো? এসব প্রশ্নের জবাব চান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x