• মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৭, ২০২০

আমেরিকার এস পি হারুনের স্ত্রী ১৫৪২ কোটি টাকার সমপরিমান বৈদেশিক মুদ্রা সহ আটক

Posted on by

নিউজ লাইফ ডেস্ক  ::  গাজীপুরের সাবেক এসপি হারুন অর রশিদের স্ত্রী শারমীন আক্তার এর নামে ১৫৩২ কোটির টাকার সমপরিমান বৈদেশিক মুদ্রা আটকে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই। এই বিপুল পরিমান অর্থ বাংলাদেশ থেকে পাচার করেছিলেন এসপি হারুন।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের নিউ হাইড পার্ক এলাকায় নগদ ৫ মিলিয়ন ডলারে একটি বাড়ি কিনতে গেলে অর্থের উৎস নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়। এরপর কেঁচো খুঁড়তে বেরিয়ে আসে সাপ নয় অজগর। একে একে ধরা পড়ে হারুনের স্ত্রীর ১৮০ মিলিয়ন ডলারের সম্পদের পাহাড়, যা পরে আটকে দেয় এফবিআই। এ নিয়ে তদন্ত চলছে।

সম্প্রতি গোপন প্রতিবেদনে এবিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর অফিসকে জানিয়েছে বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থা ডিজিএফআই। সম্প্রতি এসপি হারুনকে ঢাকার আন্দোলন ঠেকাতে ঢাকা মেট্রপলিটন পুলিশে ফেরত আনা হয়েছে।

প্রতিবেদনে আরও জানানো হয়, হারুন গাজিপুরে ১৬৩ বিঘা জমি কিনেছেন, এরমধ্যে শ্রীপুর উপজেলায় ৫৬ বিঘা, কালিগঞ্জে ২২ বিঘা, এবং গাজিপুর সদরে ৮৫ বিঘা রয়েছে। এছাড়া মালয়েশিয়াতে সেকেন্ড হোম প্রজেক্টের অধীনে সরাসরি বিনিয়োগ করেছেন বাংলাদেশী মুদ্রায় ১৮৯০ কোটি টাকা। সেখানকার নাগরিকত্বও নিয়েছেন বলে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে এই হারুন অর রশিদ ডিএমপিতে কর্মরত থাকাকালে বিএনপির চীফ হুইপ জয়নাল আবেদীন ফারুককে প্রকাশ্যে পিটিয়ে আহত করে আলোচনায় আসেন। এরপরে ২০১৪ সালে তিনি গাজিপুরের এসপি (যা পুলিশ বিভাগের সবচেয়ে লোভনীয় পদ) পদ হাসিল করেন। টানা চার বছর সে দায়িত্বে তার দুর্নীতির পরিমান ৪ হাজার কোটি টাকার মত হতে পারে জানিয়েছেন পুলিশ বিভাগে কর্মরত তার সহকর্মীরা। হারুনের টকো আটকে দেয়ার খবর পুলিশ বিভাগে চাউর হয়েছে । এতে সাধারণ পুলিশের ক্ষিপ্ত । আগামী দিনগুলোতে আন্দোলন ঠেকাতে পুলিশ নিজের চাকরি ঝুকিতে ফেলে মাঠে নামবে কিনা সেটা নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে ।

বর্তমানে দেশে যে গায়েবি মামলা হচ্ছে তার পরিকল্পনাকারি ডিআইজি হেডকোয়ার্টারে কর্মরত গোপালগঞ্জের হাবিবুর রহমান এবং ডিএমপির ডিসি হারুন । এসপির পদ ডিএমপিতে গেলে ডিসি হয়ে যায় ।ডিসি হারুন এ ঘটনায় বিব্রতকর পরিস্থিতি থেকে পালাতে যে কোনো সময় দেশ ছাড়তে পারে ।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x