• রবিবার, নভেম্বর ১, ২০২০

ভোলায় পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা বিস্ফরণ ঘটিয়ে ইটপাটকেল নিক্ষেপ আহত ৭, গ্রেফতার-১

Posted on by

ভোলা প্রতিনিধি
ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার আহম্মদপুর স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে গোপন বৈঠক চলাকালে সংবাদ পেয়ে বাঁধা দিলে পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা বিস্ফরণ ঘটিয়ে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়েছে।
এ ঘটনায় এস আইসহ ৩ পুলিশ কনষ্টেবল ও ৪ জন স্থানীয় জনসাধরণ আহত হয়েছে। এঘটনায় দুলারহাট থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করেছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার সময় ৫০/৬০জনের একটি চক্র স্কুল মাঠে নাশকতার উদ্দেশ্যে গোপন বৈঠক করেছিল।
দুলারহাট থানা পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনা স্থলে গেলে পুলিশকে উদ্দেশ্য করে সন্ত্রাসীরা বোমাবিস্ফোরণ করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) সাদ্দাম, কনষ্টেবল জাহিদ ও সরওয়ার, স্থানীয় বাচ্চু পালওয়ান, সাইফুল ইসলাম রুভেল, রোবায়েত হোসেন রুভেল ও ইউসুফ চাপরাশীসহ ৭জন আহত হয়েছে। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। পুলিশের পাল্টা হামলার মুখে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।
নুরাবাদ ইউপির সাবেক সদস্য আহম্মদপুরের বাসিন্দা রুহুল আমিন রনি বলেন, শনিবার রাত সাড়ে ১২ টায় আহম্মদপুর চৌমহনী স্কুল মাঠে সন্ত্রাসীরা ৩টি বোমা ফুটায়। পুলিশ বাঁধা দিলে তাদের উপর হামলা চালিয়ে এবং পুলিশের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেছে। পুলিশ ঘটনা স্থল থেকে একটি বোমা উদ্ধার করে নিস্কৃীয় করেছেনে।
দুলারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান পাটওয়ারী জানান, আহম্মদপুর স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে গোপন বৈঠক করেছিল। তারা নাশকতামূলক কর্মকান্ডের ঘটানোর সন্দেহে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হলে পুলিশের উপর হামলা চালায়। এক জন এসআইসহ ৩জন পুলিশসহ মোট ৭জন আহত হয়েছে।
এব্যাপারে উপ-পুলিশ পরিদর্শক দেলেওয়ার হোসেন বাদী হয়ে থানায় বোমাবিস্ফরণ আইনে ৯ জনকে চিনিত করে ৬০/৭০ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে রবিবার মামলা দায়ের করা হয়েছে। (যার নং -১)। মামলার পর পুলিশ আহম্মদপুর ৭নং ওয়ার্ডের কামরুল ইসলাম (২৭) কে আটক করা হয়েছে।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x