• শুক্রবার, অক্টোবর ২৩, ২০২০

দেশে ফিরতে চাই, জীবনের নিরাপত্তা কে দেবে: এসকে সিনহা

Posted on by

নিউজ লাইফ ডেস্কঃ সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা বলেছেন, এর আগে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর কারণে আমার জীবন ঝুঁকিপূর্ণ ছিল।কিন্তু সরকার হচ্ছে আরেকটি ফ্যাক্টর। বাংলাদেশে কোনো আইনের শাসন নেই।সিনহা বলেন, দেশে ফিরলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যে তাকে মেরে ফেলবে না, সে নিশ্চয়তা নেই। এ জন্য আমার পরিবার আমাকে দেশে যেতে অনুমতি দিচ্ছে না।

যুক্তরাষ্ট্রে শনিবার ওয়াশিংটন ডিসিতে তার নতুন বইয়ের প্রকাশন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান। রাইট টু ফ্রিডম নামের এক সংগঠনের ব্যানারে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।দর্শকসারিতে বসা এক ব্যক্তি প্রশ্ন করেন, গতকাল সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিল ও তার সরকারকে কলঙ্কিত করতে এ বই লিখতে কেউ আপনাকে অর্থায়ন করেছেন।

জবাবে সিনহা বলেন, কেউ যদি আমাকে অর্থায়ন করতেন, তবে আমি বইটি আরও ভালোভাবে সম্পাদন করতে পারতাম। অর্থের অভাবে পেশাদার সম্পাদক দিয়ে আমি বইটি সম্পাদনা করতে পারিনি।দেশে যাওয়ার কোনো পরিকল্পনা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, যখন আমি দেশ ছাড়ছিলাম, তখন প্রায় হাজারখানেক সাংবাদিক সেখানে ছিলেন। তখন আমি একটি কথাই বলেছি- আমি অসুস্থ না, আমি দেশ ছাড়তে বাধ্য হচ্ছি। আমি আবার ফিরে আসব।

বক্তব্যের শুরুতে সিনহা বলেন,অনেক বাধার পর আমি বইটি প্রকাশ করতে পেরেছি, আপনাদের সামনে আসতে পেরেছি,সে জন্য আমি আনন্দিত। আমার মোটো কী ছিল, আমি কী করতে চেয়েছিলাম,আর প্রধান বিচারপতির চেয়ারে বসার পর আমি কি দেখলাম- তা এই বইয়ে তুলে ধরেছি।তিনি দাবি করেন,বইটি প্রকাশ করার জন্য শুরুতে তিনি কারও কাছ থেকে সহযোগিতা অর্থায়ন পাননি,কোনো অর্থায়ন পাননি এমনকি প্রকাশকও পাননি। যারা তাকে সমর্থন করেছেন, তারাও সরকারের চাপের কারণে তাকে ছেড়ে গেছেন।

শেষ পর্যন্ত কিছু বন্ধু পরোক্ষভাবে বইটি প্রকাশে সহযোগিতা করেছেন জানিয়ে বিচারপতি সিনহা বলেন,তাদের নাম তিনি বইয়ের ভূমিকায় লেখননি।কারণ ‘দেশে আত্মীয়স্বজনের সমস্যা হতে পারে মনে করে তারা নাম না দিতে অনুরোধ করেছেন।সেভাবে কারও সহযোগিতা না পাওয়ায় এ বইয়ে বেশ কিছু ভুল-ত্রুটি রয়েছে এবং নির্ঘণ্টও তৈরি করতে পারেননি বলে মন্তব্য করেন বিচারপতি সিনহা।দ্রুতই বইটির দ্বিতীয় সংস্করণ প্রকাশ করা হবে, সেখানে এসব ত্রুটি সংশোধনের পাশাপাশি আরও অনেক তথ্য সন্নিবেশিত হবে,বলেন এ বিচারপতি।সূত্রযুগান্তর

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x