• বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৯, ২০২০

‘জেলখানায় প্রচণ্ড ব্যথায় অস্থির হয়ে আছেন খালেদা জিয়া’

Posted on by

নিউজ লাইফ ডেস্কঃ কারাগারে প্রচণ্ড ব্যথায় খালেদা জিয়া অস্থির হয়ে আছেন বলে জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।রোববার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান। এর আগে শনিবার সন্ধ্যায় কারাগারে দেখা করেন খালেদা জিয়ার আত্মীয়-স্বজনরা।

রিজভী বলেন, ‘শনিবার দেশনেত্রীর স্বজনরা তার সাথে দেখা করতে গিয়েছিলেন। সেখানে তার শারীরিক অবস্থা দেখে তারা বেদনাহত ও ব্যথিত হয়েছেন। ইতোপূর্বে দেশনেত্রীর ব্যক্তিগত এমনকি সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকরা তার সুচিকিৎসার জন্য যে পরামর্শ দিয়েছিলেন সেটির বিন্দুবিসর্গও পালন করা হয়নি।’

‘বরং সুচিকিৎসার দাবি করাটাও যেন দেশনেত্রীর জন্য কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। সরকার একটা মওকা পেয়ে গেছে দেশনেত্রীকে চিকিৎসা না দিয়ে তার অসুস্থতাকে চরম অবনতিশীল পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া’— বলেন রিজভী।

তিনি বলেন, ‘তার ঘাড় থেকে বাম হাতের আঙ্গুল পর্যন্ত এবং কোমর থেকে বাম পায়ের তলা পর্যন্ত প্রচণ্ড ব্যথায় তিনি অস্থির হয়ে আছেন। অস্ত্রোপচারকৃত দুটি চোখই ধূলাকীর্ণ স্যাঁতসেঁতে পরিবেশে দিনকে দিন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার প্রতি সরকার প্রধানের আচরণ লজ্জাজনকভাবে নিম্ন রুচির।’

খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে অশুভ মাস্টারপ্লান বাস্তবায়ন করা হচ্ছে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, ‘বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য বারবার দাবি করা সত্ত্বেও সরকারের এড়িয়ে যাচ্ছে। এতে মনে হয় দেশনেত্রীকে বন্দি করে হাতের মুঠোয় রেখে কোন অশুভ মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘বারবার বলা হয়েছে প্রোষ্টেটিক কমপেটিবল এমআরআই মেশিন, উন্নত মানের সিটি স্ক্যান, ডেক্সা স্ক্যান ফর বিএমডি (বনমেরু ডেনসিটি) টেষ্ট, নার্ভ কন্ডাকশন স্টাডি ফ্যাসিলিটিজ, ইএমজি— যা তার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য জরুরি সেগুলোর সুবিধা থাকায় আমরা ও তার স্বজনরা ইউনাইটেড হাসপাতালের চিকিৎসার কথা বলেছি।’

‘কিন্তু সরকার মুক ও বধির হয়ে আছে। ইউনাইটেড হাসপাতালে দেশনেত্রীকে সুচিকিৎসা না দিতে সরকার মনে হয় শপথ নিয়েছে। আর এই শপথের উদ্দেশ্যই হচ্ছে-জাতীয়তাবাদী শক্তিকে ধ্বংস করতে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ক্রমাগত কষ্ট দিয়ে তার জীবনকে বিপন্ন ও বিপর্যস্ত করা।’

রিজভী বলেন, ‘আমরা আবারও দ্ব্যর্থহীন কন্ঠে বলতে চাই, খালেদা জিয়ার প্রতি এই অন্যায় বরদাস্ত করা হবে না। তার ন্যুনতম কোনো ক্ষতি হলে সরকার জনগণের ক্রোধ থেকে রেহাই পাবে না। আমি আবারও দলের পক্ষ থেকে অবিলম্বে দেশনেত্রীর নিঃশর্ত মুক্তি এবং ইউনাইটেড হাসপাতালে সুচিকিৎসার জোর দাবি জানাচ্ছি।’

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x