সাকা চৌধুরীর চট্টগ্রাম শহরের বাড়ি গুডস হিলে হামলা-ভাংচুর

Posted on by

নিউজ লাইফ ডেস্কঃ যুদ্ধাপরাধে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর চট্টগ্রাম শহরের বাড়ি গুডস হিলে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ৫০-৬০ জনের একটি দল এই হামলা চালায় বলে ওই বাড়ির কর্মচারীরা জানিয়েছেন।তবে হামলাকারী কারা ছিলেন সে বিষয়ে তারা নিশ্চিত নন। পুলিশও এ বিষয়ে কোনো তথ্য দিতে পারেনি।

চট্টগ্রাম নগরীর গণি বেকারি মোড় সংলগ্ন গুডস হিল পাহাড়ের ওপর সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীদের বাড়ি। সেখানে সালাউদ্দিন ছাড়াও তার ভাই বিএনপি নেতা গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী ও সাইফুদ্দিন কাদের চৌধুরীসহ চার ভাইয়ের এখানে বসবাস।ওই বাড়ি রক্ষণাবেক্ষণে নিয়োজিত নুরুল ইসলাম বলেন, সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটের দিকে ৫০-৬০ জন তরুণ এসে মূল ফটক টপকে বাড়ির ভেতরে ঢুকে পড়ে।

“এ সময় তারা গার্ডরুম ও তার পাশের অফিস কক্ষে ভাংচুর করে। এরপর উপরে উঠে গ্যারেজে থাকা মাইক্রোবাস, পাজরো জিপ ও প্রাইভেট কারসহ আটটি গাড়ি ভাংচুর করে। হকিস্টিক ও লাঠি নিয়ে আসা ওই তরুণরা ভাংচুর চালিয়ে চলে যায়।হামলাকারীরা ভেতর থেকে কিছু কাগজপত্র বাইরে এনে রাস্তায় ফেলে সেগুলোতে আগুন দেয় বলে ঘটনার কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান।

ঘটনার বিষয়ে ওই বাড়ির নিরাপত্তারক্ষী মজিবুর রহমান বলেন, “কিছু ছেলে মিছিল নিয়ে আসে। তারা গার্ডরুমে ঢুকে আমাকে কোনো কথা না বলতে বলে। এমনকি মেরে ফেলারও হুমকি দেয়।রাত সোয়া ৮টার দিকে গুডস হিলে গিয়ে দেখা যায়, পাহাড়ের উপর সাইফুদ্দিন কাদের চৌধুরীর বাড়ির সামনের টব ও চেয়ার ভাংচুর করা হয়েছে।

যে পৈত্রিক বাড়িতে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী থাকতেন সেটির সামনে রাখা প্রাইভেট কার ও বারান্দায় রাখা আসবাবও ভাংচুর করা হয়েছে।এছাড়া পার্কিংয়ে রাখা মাইক্রোবাস, পাজরো জিপ ও প্রাইভেট কারসহ আটটি গাড়ির বিভিন্ন অংশ ভাংচুর করা হয়েছে।

ঘটনার পর নগরীর কোতোয়ালী থানা পুলিশের একটি দল গুডস হিল এলাকায় যায়। তখন মূল ফটক বন্ধ থাকায় পুলিশ সদস্যরা আর ওই বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করেননি। কোতোয়ালী থানার এসআই বিকাশ শীল বলেন, “আমরা এসে এখানে কাউকে পাইনি। আমাদের কাছে কেউ কোনো অভিযোগও করেনি।”

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x