• মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০

যুক্তরাজ্যের মসজিদে ক্রিপ্টোকারেন্সি হালাল: বিটকয়েনে জাকাত আহ্বান

Posted on by

নিউজ ডেস্ক,যুক্তরাজ্যঃ যুক্তরাজ্যের পূর্ব লন্ডনের একটি মসজিদ ক্রিপ্টোকারেন্সিকে হালাল ঘোষণা করেছে এবং রমজান মাস জুড়ে যাকাত হিসেবে বিটকয়েনের মতো ভার্চুয়াল মুদ্রা গ্রহণ করার কথা জানিয়েছে।ডালস্টনের ‘মসজিদ রামাদান’ বলেছে,ভার্চুয়াল মুদ্রা আল্লাহর দৃষ্টিতে গ্রহণযোগ্য,যতক্ষণ পর্যন্ত তা বৈধ লেনদেনের জন্য ব্যবহৃত হয়।মসজিদ রামাদান ‘শ্যাকেলওয়েল লেন মসজিদ’ নামেও পরিচিত। মসজিদের একজন কর্মকর্তা জায়েদ আল খায়ের বলেছেন,কোনও মুদ্রা হালালও নয়,হারামও নয়।মুদ্রা ব্যবহার করে যদি বৈধভাবে লেনদেন করা হয় তাহলে তা হালাল।

ক্রিপ্টোকারেন্সি একটি ডিজিটাল মুদ্রা যাতে কোনও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হস্তক্ষেপ ছাড়া নতুন ভার্চুয়াল মুদ্রা তৈরি ও লেনদেন সম্পন্ন করার জন্য এনক্রিপশন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়।যেহেতু এই মুদ্রার বিষয়ে কেন্দ্রীয় কোনও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ নেই,সেহেতু এর মাধ্যমে ইন্টারনেটে বেআইনি পণ্য কেনা যেতে পারে,এমন অভিযোগ রয়েছে। এর ফলে মুসলিম অধ্যুষিত দেশগুলোতে ক্রিপ্টোকারেন্সির বৈধতা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে।মিসরের মুফতি মন্তব্য করেছেন, যেহেতু ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহার করে অবৈধ কাজ করার সুযোগ রয়েছে,সেহেতু এটি হারাম।কিন্তু মসজিদ রামাদান ঘোষণা দিয়েছে, তাদেরকে যাকাতের অর্থ দিতে ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহার করা যাবে।

রমজান মাসে মুসলমানদের যাকাত দেওয়ার বিধান রয়েছে; অতিরিক্ত সম্পদের ২.৫ শতাংশ হারে দান করতে হয়।আর্থিকভাবে সক্ষম সব মুসলমানের জন্য যাকাত দেওয়া ফরজ।মসজিদ রামাদান তাদের মসজিদে যাকাতের অর্থ দানে বিটকয়েন ও ইথেরিয়াম নামের ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহারের আহ্বান জানিয়েছে। ইসলামি অর্থব্যবস্থা নিয়ে কাজ করতে আগ্রহী লন্ডনভিত্তিক ব্লকচেইন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান কম্বো ইনোভেশন মসজিদ রামাদানকে প্রযুক্তিগত পরামর্শ দিচ্ছে।মসজিদটিকে ইন্টারনেটে বিটকয়েন অ্যাকাউন্ট খুলতে সহায়তা করা কম্বো ইনোভেশনের প্রতিষ্ঠাতা গুরমিত সিং মনে করেন, এটা যাত্রার শুরু মাত্র। তার ভাষ্য, ‘বর্তমানে বলতে গেলে কোনও মসজিদ বা ইসলামি দাতব্য সংস্থাই যাকাত সংগ্রহে ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহার করে না। এতে তারা লাখ লাখ পাউন্ড হারাচ্ছে।’

যাকাতের অনুদান থেকে পাওয়া অর্থ মসজিদ সংস্কার, দাফনে সহায়তা দেওয়া এবং দরিদ্রদের আশ্রয় ও খাদ্য সরবরাহের মতো কাজে ব্যবহার করা হবে। মসজিদ রামাদান কর্তৃপক্ষ আশা করছে, রমজান মাসে ক্রিপ্টোকারেন্সিতে ১০ হাজার পাউন্ড সংগ্রহ করতে পারবে তারা। মসজিদের বোর্ড অফ ট্রাস্টির সভাপতি এরকিন গুনেই বলেছেন, ‘নতুন মুদ্রা ব্যবহারের সুযোগ দিয়ে আমরা আরও বড় জনগোষ্ঠীর কাছে আমাদের আবেদন পৌঁছানোর চেষ্টা করছি।’ মসজিদটির বিটকয়েন অ্যাকাউন্ট নম্বর[1BKVeFPC4ma3WkWQ7BDY4NS4ecTtKeFSbW]। এখন পর্যন্ত সেখানে ১০০ পাউন্ড সমমানের বিটকয়েন অনুদান হিসেবে জমা পড়েছে।

Leave a Reply

More News from আন্তর্জাতিক

More News

Developed by: TechLoge

x