• সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০

কূটনীতিকদের সঙ্গে বসবে বিএনপি

Posted on by

দেশের বিদ্যমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও খালেদা জিয়ার কারাদণ্ড ও তার স্বাস্থ্য নিয়ে ঢাকায় নিযুক্ত বিদেশি কূটনীতিকদের ব্রিফ করবে বিএনপি।সোমবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে দলের গুলশানের চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয় দলটি।তবে কূটনীতিকদের ব্রিফ করার সুনির্দিষ্ট দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়নি। প্রায় আড়াই ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে বিএনপির কূটনৈতিক উইংয়ের অন্তত ১৫ জন দায়িত্বশীল নেতা অংশ নেন।সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

বৈঠকে অংশ নেওয়া একাধিক নেতা জানান, দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিচার-বিশ্লেষণ করে বিষয়গুলো ঢাকায় নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিদের জানানোর বিষয়ে আলোচনা হয়। এতে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন স্থগিত, পরবর্তী পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ, খালেদা জিয়ার মামলা, ৮ মে হাইকোর্টে আপিলবেঞ্চে জামিন শুনানির, তার স্বাস্থ্য সমস্যাসহ নানা বিষয় উঠে আসে।

সোমবারের বৈঠকে অংশ নেওয়া এক তরুণ দায়িত্বশীল বলেন, ‘খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে রোজার মাসে বিদেশি প্রতিনিধিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ, ইফতার মাহফিল নিয়েও আলোচনা হয় বৈঠকে। কোনও-কোনও বিষয়ে সিদ্ধান্ত হলেও চূড়ান্ত করা হবে ৮ মে খালেদা জিয়ার জামিন শুনানির পর।’

সূত্র জানায়, শিগগিরই বাংলাদেশে নিযুক্ত কূটনীতিকদের গুলশানে ডেকে পরিস্থিতির ওপর ব্রিফ করবে বিএনপি। এছাড়া চলমান অবস্থান ওপর বিদেশিদের চিঠি দেওয়ার বিষয়েও আলোচনা হয় বৈঠকে।জানতে চাইলে বৈঠকে অংশ নেওয়া বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বাংলা ট্রিবউনকে বলেন, ‘সোমবারের বৈঠক আমাদের ইন্টারনাল বৈঠক। এটা আলোচনার বিষয় নয়।কূটনীতিকদের পরিস্থিতি ব্রিফ করার বিষয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘এটা চিন্তা-ভাবনা করছি। এখনও চূড়ান্ত হয়নি।উল্লেখ্য, খালেদা জিয়া ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ডাদেশে জেলে যাওয়ার পর কয়েকদফা বিদেশি কূটনীতিকদের গুলশানে ডেকে পরিস্থিতি জানায় বিএনপি। এ বছরের ৩০ জানুয়ারি, ১৩ ফেব্রুয়ারি কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন দলটির কূটনৈতিক উইংসহ সিনিয়র নেতারা।এছাড়া ৯ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধিদের কাছে পরিস্থিতি তুলে ধরে বিএনপি।

কূটনৈতিক উইংয়ের একজন প্রভাবশালী নেতা বলেন, ‘সাধারণত বৈঠকে রাজনৈতিক আলোচনা হয়। আজকের বৈঠকেও তা ছিল। তবে আজকের আলোচনায় রোজার মাসে কূটনীতিকদের সঙ্গে কীভাবে বসবে, সেই বিষয়টিসহ ম্যাডামের অনুপস্থিতির বিষয়টিও ছিল।’

জানতে চাইলে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমেদ চৌধুরী বলেন, ‘আমরা আলোচনার জন্য বসেছিলাম। রাজনৈতিক আলোচনা হয়েছে। আমাদের নিজস্ব কাজ নিয়ে আলাপ হয়েছে।’

বৈঠকে অংশ নেন—স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমেদ চৌধুরী, উপদেষ্টা রিয়াজ রহমান, সাবিহ উদ্দিন আহমদ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ, অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার,  জেবা খান, তাবিথ আউয়াল প্রমুখ।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x