• বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০

খুলনা ও গাজীপুরের পুলিশ কমিশনারের প্রত্যাহার চায় বিএনপি

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ নির্বাচনকালীন সময়ে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ও গাজীপুরের পুলিশ সুপারের (এসপি) প্রত্যাহার চেয়ে নির্বাচন কমিশনের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বিএনপি। বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

মঈন খান বলেন, আমরা নির্বাচন কমিশনের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছি, আমরা বলেছি, নির্বাচনে আগে পুলিশ কর্তৃক নির্বাচনী প্রচারণা বাঁধা দেওয়া হচ্ছে এবং বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়িতে-বাড়িতে ভয়-ভীতি প্রর্দশন করা হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে খুলনায় যে পুলিশ কমিশনার আছেন, এর দায়-দায়িত্ব উনাকেই নিতে হবে। আর এজন্য যদি অসম- নির্বাচনী পরিবেশ সৃষ্টি হয় তাহলেও এর খুলনা মেট্রোপলিটন সিটির পুলিশ কমিশনারকে নিতে হবে। আমরা অনুরোধ করেছি নির্বাচনকালীন সময়ে তাকে (খুলনা মেট্রোপলিটন সিটির পুলিশ কমিশনার) যাতে প্রত্যাহার করা হয়।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনকে বলেছি, যখন নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা হয়ে যায় সেই সময় থেকে নির্বাচনী এলাকায় সকল ক্ষমতা ইসি’র। কিন্তু নির্বাচন কমিশনের যে ক্ষমতা, সেই ক্ষমতার ধারক-বাহক যদি পুলিশ হয়ে যায় তাহলে সেখানে ভিন্ন রকমের পরিবেশন সৃষ্টি হয়। এই পরিস্থিতিতে কিভাবে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হতে পারে- প্রশ্ন রাখেন তিনি।

বিএনপির এই স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, আমাদের (বিএনপির) দু’জন স্থায়ী কমিটির কমিটির সদস্যসহ আরো নেতাকর্মীরা সেখানে (খুলনা) নির্বাচনী প্রচারণায় গিয়েছেন। তারা যে হোটেলে রয়েছে, সেই হোটেল পুলিশ ঘিরে রেখেছে এবং ভিতরেও পুলিশ রয়েছে। এটা কি উদ্দেশ্য হতে পারে?

‘খুলনায় সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি বিভিন্ন ভয়-ভীতি প্রর্দশন করা হচ্ছে। এছাড়া নির্বাচনী প্রচারণা করার সময়, সেখান থেকে বিএনপির ১৯ জন নেতাকর্মীরাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে’ এ কথাও নির্বাচন কমিশনের কাছে তুলে ধরা হয়েছে বলেও জানান মঈন খান।

মঈন খানের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনের বৈঠকে বিএনপির পক্ষে উপস্থিত ছিলেন দিলটির ভা্ইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, বরকত উল্লাহ বুলু।

Leave a Reply

More News from বাংলাদেশ

More News

Developed by: TechLoge

x