• বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১, ২০২০

খালেদা জিয়ার মামলায় বিদেশি আইনজীবী নিয়োগের কারণ জানালেন ফখরুল

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলায় তার লিগ্যাল টিমকে আইনি পরামর্শ দিতে যুক্ত হয়েছেন বৃটিশ আইনজীবী লর্ড কারলাই সিসিই কিসি।

আজ মঙ্গলবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই কথা জানিয়ে বলেন, আমাদের প্রবাসী বন্ধু যারা আছেন বিশেষ করে লন্ডনে আমাদের রাজনীতিকে যারা সমর্থন করেন তারা বৃটেনে বিভিন্ন আইনজীবীদের সাথে আলাপ-আলোচনা করে একজন প্রখ্যাত আইনজীবীকে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মামলাগুলোতে আইনি যে লড়াই, সেই লড়াইয়ে এখানকার ল’ইয়ার্স যে প্যানেল আছে, সেই প্যানেলকে সহযোগিতা করবার জন্য, পরামর্শ দেবার জন্য নিয়োগ দিয়েছেন। আমি সেই আইনজীবীর নাম বলছি, প্রখ্যাত বৃটিশ আইনজীবী ব্যারিস্টার লর্ড কারলাই সিবিএ কিউসি। তার অফিস থেকে উনি (লর্ড কারলাই) একটা চিঠি পাঠিয়েছে- হি ওয়াজ এক্সসেপটেড, এটা উনি এক্সসেপট করেছেন। উনি (বৃটিশ আইনজীবী) এখন থেকে সহযোগিতা প্রদান করবেন, পরামর্শ দেবেন এবং প্রয়োজনী আইনি যতটুকু করা প্রয়োজন তার পক্ষে সম্ভব সেটা তিনি করবেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, তিনি (লর্ড কারলাই) আমাদের লিগ্যাল টিমের সাথে কাজ করতে যোগ দিয়েছেন। উনি ওখান থেকে কাজ করবেন। প্রয়োজনে দেশেও আসবেন।

খালেদা জিয়ার মামলায় দেশের আইনজীবীরা কি যথেষ্ট মনে করছেন না বলেই বৃটিশ আইনজীবীকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে কিনা প্রশ্ন করা হলে মির্জা ফখরুল বলেন, নট নেসেসারিলি। এটা করা হয়েছে এনরিচ করা এবং ইন্টারন্যাশনাল এরিনাতে এ বিষয়টাকে নিয়ে আসা।

দেশের শীর্ষ আইনজীবী ড. কামাল হোসেন পরামর্শ দেবেন কিনা প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ড. কামাল হোসেন বলেছেন যে, উনি কেইসের বিষয়টা পড়ছেন। যতটুকু পরামর্শ প্রয়োজন তিনি দেবেন যখন মূল কেইসে শুনানী হবে।

খালেদা জিয়ার লিগ্যাল টিমে সিনিয়রদের মধ্যে রয়েছেন সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এজে মোহাম্মদ আলী, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, অ্যাডভোকেট আবদুর রেজ্জাক খান, অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদিন।

বৃটিশ আইনজীবীর কর্ম অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বিএনপি মহাসচিব বলেন, উনি ট্রায়াল প্রসেসের ব্যাপারে কাজ করবেন, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার রক্ষা হচ্ছে কিনা সেটা তিনি দেখবেন এবং জেনারেল ক্রিমিনাল আইন ঠিক এখানে বাস্তবায়ন হচ্ছে কিনা সে বিষয়ে তিনি পরামর্শ দেবেন। লর্ড কারলাইয়ের যথেষ্ট অভিজ্ঞতা রয়েছেন ক্রিমিনাল প্রসেসের ওপর।

লর্ড কারলাই কুইন্স কাউন্সিলের সদস্য এবং হাউজ অব লর্ড এর সদস্য। দীর্ঘকাল ধরে তিনি আইন পেশার সাথে জড়িত এবং রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তিনি কমনওয়েল রাইটস ইনিশিয়েটিভের চেয়ারম্যান। ২৮ বছর ধরে তিনি পার্টটাইম জজ হিসেবে কাজ করেছেন ইনক্লুডিং ইন দি হাইকোর্ট অব জাস্টিস। তিনি একজন সাবেক এমপি।

লর্ড কারলাইয়ের অফিস থেকে পাঠানো পত্রটি পড়ে শুনান বিএনপি মহাসচিব।

‘‘I am pleased to joining the team in this important case. One cannot say too often that criminal trials have no integrity unless the evidence is presented fairly and before a totally imparcial tribunal. I am still reading my way into the case, but I am already concerned about the process and its fairness.’’

এই কথাগুলো বলে লর্ড কারলাই আমাদের সাথে যোগ দিয়েছেন। ওখান থেকে তিনি কাজ করবেন। প্রয়োজনে দেশেও আসবেন।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, খালেদা জিয়ার ৩৬টি মামলায় লর্ড কারলাই আইনি পরামর্শ দেবেন।

নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, আতাউর রহমান ঢালী, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সহসাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

More News from বাংলাদেশ

Developed by: TechLoge

x