• রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

কোনো অগণতান্ত্রিক সরকার এখানে চিরস্থায়ী হতে পারেনি, পারবেও না : ড. কামাল

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, কোনো অগণতান্ত্রিক সরকার এখানে চিরস্থায়ী হতে পারেনি, পারবেও না। প্রত্যেকবারই জনগণ অন্যায়ের বিরুদ্ধে জয়ী হয়েছে। তিনি বলেন, ভাবতে অবাক লাগে একটি অগতান্ত্রিক সরকার কী করে বলে তারা গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত।

জাতীয় প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে রোববার এক শোক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। পাটির নেতা ডা: রওশন হাকিম, ফজলুল কবির কাউসার, আবুল হাসনাতের মৃত্যুতে এ শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী আওম শফিক উল্লাহ, অ্যাডভোকেট জগলুল হায়দার আফ্রিক, অধ্যাপিকা বিলকিস বানু, মোশতাক আহমেদ, খান সিদ্দিকুর রহমান, হারুন অর রশিদ তালুকদার, সাঈদুর রহমান, মিজানুর রহমান, শফিউর রহমান বাচ্চু, হোসনে আরা খানম এবং ডা: রওশন হাকিমের কন্যা ডা: তাসমিনা হাকিম, ফজলুল কবির কাউসারের স্ত্রী অধ্যাপিকা নাসরিন খানম ও আবুল হাসনাতের ছেলে আনান হাসনাত বক্তব্য রাখেন।

শোকসভায় ড. কামাল হোসেন আরো বলেন,সব অগণান্ত্রিক সরকার স্বপ্ন দেখে তাদের ক্ষমতা চিরস্থায়ী হতে যাচ্ছে। কিন্তু তারা ভুলে গেছে প্রত্যেকবারই এখানে জনগণের শক্তি জয়লাভ করেছে। স্বৈরাচার পরাজিত হয়েছে।

তিনি বলেন, এসরকার স্বপ্নে ভাবছে সব ঠিক ঠিক। ক্ষমতায় থাকলে সবাই তা মনে করে। কিন্তু জনগণকে বুঝিয়ে দিতে হবে যে সব ঠিক নেই। সব ঠিকভাবে চলছে না। জনগণের দায়িত্ব রয়েছে সরকারকে এসব ব্যাপারে জানিয়ে দেয়া। তিনি বলেন, জনগণকে তার মালিকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে হবে। তাহলেই বিজয় নিশ্চিত।

৯০-এর আন্দোলনে স্বৈরাচার সরকার আশা করেছিল আরো পনের বছর তারা ক্ষমতায় থাকবে। সে সময় অনেক বিদেশী রাষ্ট্রের শীর্ষ ব্যক্তিরা স্বৈরাচার সরকার আরো দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকবে বলে দাবি করেছিল। কিন্তু তা আর সম্ভব হয়নি। তিনি বলেন, এদেশের মানুষ ঐক্যবদ্ধ হলে যেকোনো অগণতান্ত্রিক সরকারের পতন নিশ্চিত। এবং জনগণ ঐক্যবদ্ধ হবে সে লক্ষ্যেই তার দল ও দলের নেতারা কাজ করে যাচ্ছেন বলেন তিনি জানান। তিনি বলেন, স্বাধীনতার পক্ষের শক্তির ঐক্যেই অগণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার পতন হবে।

তিনি দলীয় নেতাদের আত্মত্যাগের কথা স্বরণ করে বলেন, জনগণ কখনই তাদের অবদান ভুলবে না। তিনি বলেন,সুস্থ রাজনীতি প্রতিষ্ঠা করতেই তার দলের নেতারা সব সময় চেয়েছেন। তিনি বলেন, এধরণের আপসহীন নেতা কর্মীদের ত্যাগ কখনো বৃথা যেতে পারে না। তিনি বলেন, সুস্থ রাজনীতির প্রতিষ্ঠা করা প্রত্যেক জনগণের কর্তব্য। তিনি বলেন, সুস্থ রাজনীতি ছিল বলেই দেশ স্বাধীন হয়েছে ভাষা আন্দোলন সফল হয়েছে।

এতে অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন, দেশে রাজনীতির নামে প্রতারণা চলছে। চলছে রাজনৈতিক প্রতারণা। রাজনীতিতে লোভলালসা ঢুকে গেছে।

Leave a Reply

More News from বাংলাদেশ

More News

Developed by: TechLoge

x