• বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১, ২০২০

‘পক্ষপাতদুষ্ট রায়, বিএনপির আন্দোলনে যাওয়ার বিকল্প নেই’

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ জিয়ার অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়ে ঘোষিত রায়কে পক্ষপাতদুষ্ট বলে অভিহিত করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ। এ রায়ের প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি আন্দোলন করবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বিএনপির আন্দোলনে যাওয়ার বিকল্প নেই। বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত আন্দোলন ছাড়া কিছু অর্জিত হয়নি। এমনকি স্বাধীনতাও আইন-আদালতের মাধ্যমে আসেনি। আমাদের বিশ্বাস, বেগম জিয়া অচিরেই মুক্তি পাবেন।বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পুরান ঢাকার বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসায় স্থাপিত অস্থায়ী বিশেষ আদালতে খালেদা জিয়ার কারাদণ্ডের রায় ঘোষণার পর আদালতের সামনে সাংবাদিকদের কাছে এ প্রতিক্রিয়া দেন মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন।বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, ‘এই রায়ে আমরা সন্তুষ্ট নই। এই রায় বাংলাদেশের জনগণকেও সন্তুষ্ট করতে পারেনি। আমরা আদালতের প্রতি শদ্ধাশীল।’
নিম্ন আদালতে বিচারকদের স্বাধীনতা নেই অভিযোগ করে বিএনপি নেতা হাফিজ উদ্দিন বলেন, ‘আমরা সবাই জানি, নিম্ন আদালতে কোনও স্বাধীনতা নেই। আইনজীবীরাও আদালতের স্বাধীনতার জন্য আন্দোলন করছেন। প্রধান বিচারপতি স্বাধীনতার কথা বলেন। মাজদার হোসেন মামলায় এ ধরনের একটি রায় আছে। কিন্তু আজও নিম্ন আদালত সরকারের ওপর নির্ভরশীল। এই রায়ে আমরা বিক্ষুব্ধ। এটি একটি মিথ্যা মামলা ছিল।’
বিএনপির সামনে এখন পথ কী— সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা এখন দলীয়ভাবে বসে সিদ্ধান্ত নেবো। যেহেতু বেগম জিয়া এখন অন্তরীণ, কেন্দ্রীয় স্ট্যান্ডিং কমিটি ও সিনিয়র নেতারা বসে কর্মসূচি ঘোষণা করবো।’ এখন থেকে বিএনপির স্থায়ী কমিটি ও দলটির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান মিলিতভাবে দল চালাবেন বলে জানান তিনি।
আগামী নির্বাচনের ওপর এই রায়ের প্রভাব পড়বে কিনা— জানতে চাইলে মেজর (অব.) হাফিজ বলেন, ‘যাদের অন্যায়ভাবে কারারুদ্ধ করা হয়, জনগণ তাদের প্রতি সহানুভূতি দেখায়। তা নির্বাচনেও প্রতিফলিত হয়। বাংলাদেশের জনগণ সবসময় নিপীড়িতদের পক্ষে।’
এর আগে, বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা ২৯ মিনিটে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা করেন ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ মো.আখতারুজ্জামান। আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯ ও ১০৯ ধারার অপরাধ প্রমাণ হয়েছে বলে জানান তিনি। ৬৩২ পৃষ্ঠার রায়ের বিশেষ বিশেষ অংশ পড়েন তিনি।রায় ঘোষণার পর দুপুর পৌনে ৩টার দিকে খালেদা জিয়াকে আদালত চত্বর থেকে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারের পথে নিয়ে যাওয়া হয়। রায় ঘোষণার পর আদালতে উপস্থিত খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা হট্টগোল শুরু করেন।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x