• বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০

ডিএমপির নিষেধাজ্ঞাকে ‘অনাচার’ বলছে বিএনপি

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলার রায়ের দিন (৮ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীতে মিছিল-সমাবেশের বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) নিষেধাজ্ঞাকে ‘অনাচার’ হিসেবে অভিহিত করেছেন দলটির নেতা রুহুল কবির রিজভী।

মঙ্গলবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় সব ধরনের মিছিল-সমাবেশ বন্ধের ডিএমপি যে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে, তা আইনের নামে অনাচার। এটা ভয়ঙ্কর কালাকানুন।’

সরকারকে উদ্দেশ করে বিএনপির এই জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘জনগণের হৃদয়ের মধ্যে যে ক্ষোভ-বেদনা দানা বেঁধেছে, সেই বেদনা আপনি (সরকার) আইনের দ্বারা, অস্ত্রের দ্বারা বন্ধ করতে পারবেন না। মানুষ তার প্রতিবাদ করতে ছুটবেই ছুটবে।’

ডিএমপির এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘৮ ফেব্রুয়ারি ভোর ৪টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ঢাকা মহানগরে সব ধরনের ছড়ি বা লাঠি, ছুরি, চাকু বা ধারালো অস্ত্র, বিস্ফোরক দ্রব্য ও দাহ্য পদার্থ বহন নিষিদ্ধ থাকবে। যানবাহন ও জনসাধারণের চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে এবং রাস্তায় দাঁড়িয়ে/বসে কোনো ধরনের মিছিল করা যাবে না।’

ডিএমপির নিষেধাজ্ঞার প্রেক্ষিতে ওই দিন বিএনপির অবস্থান নিয়ে জানতে চাইলে রিজভী বলেন, ‘আমরা গণতন্ত্রের রীতির বাইরে কোনো পথ গ্রহণ করব না। কারণ গণতন্ত্রের কৃতিত্ব তো বিএনপির, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ও বেগম খালেদা জিয়ার। সুতরাং আমরা গণতান্ত্রিক রীতির মধ্যে, গণতান্ত্রিক পদ্ধতির মধ্যে, গণতন্ত্রের আওতার মধ্যে আমরা যতটুকু প্রতিবাদ করার, ততটুকুই করব।’

দলের যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেলের সন্ধান পাওয়া যায়নি জানিয়ে রিজভী বলেন, ‘আমরা এখনো কোথাও অবস্থান নিশ্চিত করতে পারিনি। আমরা এখনো বুঝতে পারছি না, কারণ পুলিশ যখন বলেছে তাদের কাছে, তখন তো অনিশ্চয়তা থাকার কথা নয়। আবার এরপরেই যদি বলে যে, তারা (পুলিশ) জানে না, তখন তো ভয়ের কারণ, উদ্বেগের কারণ।’

Leave a Reply

More News from বাংলাদেশ

More News

Developed by: TechLoge

x