• মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০

পাঁচ দিনে বিএনপির ৫ শতাধিক নেতাকর্মী গ্রেফতার: রিজভী

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘গত পাঁচদিনে ঢাকাসহ সারা দেশে পাঁচ শতাধিক দলীয় নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘দেশ এখন ভয়ঙ্কর বিপদের মধ্যে। গণতন্ত্রহীনতাকে বলা হচ্ছে গণতন্ত্র, কণ্ঠরুদ্ধ করাকে বলতে হবে বাকস্বাধীনতা, হয়রানি আর অবিচারকে বলতে হবে বিচার।’

আজ রোববার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন রুহুল কবির রিজভী।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘সরকার দুরন্ত গতিতে তাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে দিয়ে বেপরোয়া গ্রেপ্তার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। ঢাকাসহ সারা দেশে বিএনপির নেতাকর্মীদেরকে গোয়েন্দা পুলিশ আকস্মিক ঝাপটা মেরে তাঁদের আটক করছে।’

বিএনপির নেতা রিজভী জানান, গতকাল শনিবার লা মেরিডিয়ান হোটেলে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সভা চলাকালে ও সভা শেষে বেরিয়ে যাওয়ার পর রাস্তা থেকে প্রায় ৩৫ জনের অধিক নেতাকর্মীকে গোয়েন্দা পুলিশ আটক করেছে। গত শুক্রবার রাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী আমান উল্লাহ আমান, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য নাজিমউদ্দিন আলম এবং গতকাল সভা শেষে ফেরার সময় ফরিদপুর বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক খন্দকার মাশুকুর রহমান মাশুককে আটক করে র‌্যাব ও গোয়েন্দা পুলিশ।

রিজভী জানান, আজ রোববার মুন্সীগঞ্জে জেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল হাইয়ের সভাপতিত্বে কর্মিসভা শেষ হওয়ার পর পরই গজারিয়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইসাহাক আলী চেয়ারম্যান, মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদুর রহমান ফকির, টঙ্গীবাড়ী উপজেলা যুবদলের সদস্য মো. সোহেল, ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সুলতান আহমেদ, সহ-সভাপতি রুহুল আমিন, কোতোয়ালি থানা শ্রমিক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ওমর ফারুক, নরসিংদী জেলাধীন শিবপুর থানা বিএনপি নেতা মাসুদ হায়দার মহিউদ্দিন, ঢাকা মহানগর পশ্চিম ছাত্রদল নেতা সোহাগ ভূঁইয়া, নরসিংদী জেলাধীন চিনিশপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আসলাম, মাধবদী পৌর স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা মুকুল, যুবদল নেতা মুনির, সদর উপজেলা ছাত্রদল নেতা আক্তার হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রিজভী জানান, এ ছাড়াও ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের যুগ্ম সম্পাদক করিম সরকারকে রাজধানীর উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরের তাঁর বাসা থেকে ডিবি পুলিশ গ্রেপ্তার করে নিয়ে গেছে।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘সরকারের অঙ্গ সংগঠনের ভূমিকা পালন করেছে বলেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পুলিশের প্রতি মানুষের ভালোবাসার কথা বলছেন। বিরোধী দলের নেতৃবৃন্দ ও কর্মীদের ওপর নির্যাতন তো দৈনন্দিন ঘটনা, একটি অরাজনৈতিক ও দেশের স্বার্থের পক্ষে সংগঠন তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির মিছিলে পুলিশের উন্মত্ত হামলায় অধ্যাপক আনু মুহাম্মদের পা ভেঙে দেওয়াসহ তাদের অসংখ্য বরেণ্য ব্যক্তিকে মারাত্মক আহত করা হয়। সেটিও কেউ ভুলে যায়নি।’

রিজভী বলেন, ‘পুলিশকে দলস্বার্থে ব্যবহার করতে গিয়ে সুকৌশলে পুলিশের মেরুদণ্ড ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। এ বিষয়গুরো নিয়ে আপনাদের চিন্তা-ভাবনা করা দরকার। জনইচ্ছার বিরুদ্ধে দাঁড়ালে সুনাম নষ্টের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠান ধ্বসে যায়। আপনাদেরকে অনুরোধ করছি-ফ্যাসিবাদ ও স্বৈরাচারের উপাসক হবেন না।’

রিজভী বলেন, ‘সম্পূর্ণ নির্দোষ বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জাল নথির ওপর ভিত্তি করে অসত্য মামলায় ধারাবাহিক হয়রানি ও হেনস্তার পর ৮ই ফেব্রুয়ারির সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছে জনগণ। এখানে সরকারের প্রতিশোধ স্পৃহার প্রতিফলন ঘটে নাকি ন্যায়বিচার হয় সেটিই এখন অবলোকন করার বিষয়।’

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x