• মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০

শোডাউন করে বাসায় ফিরছেন খালেদা জিয়া

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বৃহস্পতিবার (০৪ জানুয়ারি) বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষে সপ্তমদিনের মতো যুক্তিতর্ক শেষ হয়েছে। নতুন করে বুধ ও বৃহস্পতিবার (১০ ও ১১ জানুয়ারি) ফের যুক্তিতর্কের দিন ধার্য করেছেন আদালত।

এর আগে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ৩৫ মিনিটের দিকে খালেদা জিয়া আদালতে যান। রাজধানীর বকশিবাজারে কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত ঢাকার বিশেষ জজ ড. মো. আখতারুজ্জামানের আদালতে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন আইনজীবীরা।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে সপ্তমদিনের মতো যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন অ্যাডভোকেট এ জে মোহাম্মদ আলী। এর আগে অ্যাডভোকেট আব্দুর রেজ্জাক খান ও অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াসহ মোট আসামি ছয়জন। অপর পাঁচ আসামি হলেন- বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদার বড় ছেলে তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী এবং প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।

আসামিদের মধ্যে ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান মামলার শুরু থেকেই পলাতক। বাকিরা জামিনে রয়েছেন। এ মামলায় সাক্ষ্য দিয়েছেন মোট ৩২ জন। জামিনে থাকা অন্য দুই আসামি জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও মনিরুল ইসলাম খান আত্মপক্ষ সমর্থন করে আদালতে লিখিত বক্তব্য জমা দিয়েছেন। হারিছ চৌধুরী মামলার শুরু থেকেই পলাতক।

এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ মামলাটি করে দুদক। ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় মামলাটি করা হয়। ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক।

এদিকে, জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় হাজিরার শেষে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নেতাকর্মীদের নিয়ে ব্যাপক শোডাউন করে বাসায় ফিরছেন। হাইকোর্ট মাজার গেটের সামনে থেকে শুরু করে রুপসী বাংলা হোটেল পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সামনেই ব্যাপক শোডাউন করেছে বিএনপির নেতাকর্মীরা।

বৃহস্পতিবার (০৪ জানুয়ারি) বিকেল পৌনে ৩টার দিকে পুরান ঢাকার বকশিবাজারের আলীয়া মাদরাসার মাঠে স্থাপিত বিশেষ আদালত থেকে বের হন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। আদালত থেকে বের হলে ওই এলাকায় অপেক্ষমান দলটির নেতাকর্মীরা তার গাড়িবহরে যুক্ত হন।

গাড়িবহর হাইকোর্ট মাজারের সামনে এলে ভেতরে অপেক্ষমান আরও নেতাকর্মী গাড়িবহরে যোগ দেন। পথে পথে মিছিল আর স্লোগানে হাজার হাজার নেতাকর্মীরা গাড়িবহরে যুক্ত হওয়ায় যে পথ দিয়ে বেগম জিয়া গুলশানের দিকে অগ্রসর হচ্ছিলেন সেসব রুটে যানচলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।

খালেদা জিয়ার আদালতে হাজিরা দেয়াকে কেন্দ্র করে পুরান ঢাকার বিশেষ জজ আদালত এলাকা ও আশপাশ এলাকায় কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিল। বিশেষ করে হাইকোর্ট এলাকায় নজরদারি ছিল বেশি। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে হাইকোর্টের মাজার গেট, কদম পোয়ারা মোড়সহ ওই এলাকায় পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ ও ধরপাকড়ের ঘটনা ঘটছে। এসব ধরপাকড়ের মধ্যেই খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে নেতাকর্মীদের ব্যাপক ঢল নামছে।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x