আজ বৃহস্পতিবার,২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৮শে জিলহজ্জ, ১৪৩৮ হিজরী

সিলেটে ঢাকা রিজেন্সীর মিলনমেলা

প্রকাশিত: আগস্ট ২৮, ২০১৭ ৪:৩৩ অপরাহ্ণ   আপডেট: আগস্ট ২৮, ২০১৭ at ৪:৩৩ অপরাহ্ণ
 

ইউকেবিডি টাইমস ডেস্কঃ

ঢাকা রিজেন্সী খুব কম সময়ে পরিচিতি লাভ করা পাঁচ তারকা হোটেল। প্রতিষ্টালগ্ন থেকেই ঢাকা রিজেন্সী তার অতিথীদের জন্য ভিন্নধর্মী অনুষ্ঠান আয়োজন করে সুনাম অর্জন করে আসছে। ঢাকা রিজেন্সী তার অথিতিদেরকে সব সময়ই একটু অন্যভাবে স্বিকৃতি দেয়। এরই ধারাবাহিকতায় প্রথমবারের মত সিলেটে একটি ব্যাতিক্রমী আয়োজন করেছে ঢাকা রিজেন্সী ।

আজকের সারাবিশ্বে চলছে একীভূতকরন যৌথ ও সম্মিলিত উদ্ব্যেগের প্রতিযোগিতা। কাজের চাপে মানুষ তার অস্তিত্ব প্রায় ভুলতে বসেছে, এখন যেন কারই সময় নেই। যে যে যার যার মত ব্যাস্ত। যান্ত্রিকতার বেড়াজালে আবদ্ধ সবাই, পুরো পৃথিবী জুড়ে যে প্রতিযোগিতা চলছে তাতে পিছিয়ে না পরে সম্মিলিতভাবে সামনে এগোনোর চেষ্টাই সবার। আর এমন ব্যাস্ত মানুষদের কিছুক্ষনের জন্য মিলিত করাও দুরহ কাজ । এই অসাধ্যকে সাধন করেই গত ২২ শে আগস্ট একটি মিলনমেলার আয়োজন করেছিল ঢাকা রিজেন্সী হোটের এন্ড রির্সোট, সিলেটের একটি অভিজাত হোটেলে। পুরো অনূষ্ঠান জুরেই ছিল সিলেট শহরের সব প্রতিষ্ঠিত এয়ারলাইন, ট্র্যাভেল এজেন্ট, ট্যুর অপারেটর এবং রাজনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ সহ হোটেলর এর উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাগন এর উপস্থিতি। অনুষ্ঠানে আরও ঊপস্থিত ছিলেন হোটেলের চেয়ারম্যান মুসলেহ আহমেদ, নির্বহী পরিচালক শাহিদ হামিদ এফ আই এইচ এবং বিক্রয় ও বিপনন বিভাগের কর্মকর্তাগন ।

মুসলেহ আহমেদ, চেয়ারম্যান, ঢাকা রিজেন্সী বলেন – আমি আপনাদেরই একজন- আমার জন্মও এই খানেই, আমি চাই সিলেটকে আরও একটু এগিয়ে নিয়ে যেতে, যেমনটি নিয়েছি ঢাকা রিজেন্সিকেও, চাই টুরিজমে সিলেট কে আরও এক ধাপ সামনে মেলে ধরতে যেন প্রত্যেকটি মানুষ সিলেট সম্পর্কে জানে, বলতেপারে – কত সুন্দও আমাদের এই ছোট্টশহরটা, কত নয়নাভিরাম দৃশ্যে ভরপুর চারিদিক। একটা সময় ছিল যখন ”বিছানাকান্দিকে” মানুষ চিনত না জানত না কোথায় তাও বলতে পারতোনা , কিš ‘ু আজ কারও অজানা নাই, সুন্দরকে ঢেকে রাখ াযায় না এসব দর্শনীয় জায়গা গুলোকে সামনে আনতে হবে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে হবে- আমি ঐ কাজ টাই করতে চাই আর এটা আমার করো পক্ষেই করা সম্ভব না, আপনাদের সবার স্বম্মিলিত চেষ্টায় পারে প্রাকৃতিক ঐর্শ্বযে ভরপুর সিলেটকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরতে ।
আপনারা জেনে অত্যন্ত আনন্দিত হবেন যে, ইতিমধ্যে আমাদের নির্বাহী পরিচালক এবং পাটা বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের চেয়ারম্যান- জনাব শ্হীদ হামিদ এফ আই এইচ এর নেতৃত্ত্বে সিলেটকে ঈঊঙ ঈড়হঃবংঃ এ উবংঃরহধঃরড়হ চৎড়সড়ঃরড়হ এ পাঠানো হয়েছিল। যেখানে সাফল্যতার সাথে লড়তে হয়েছে অন্যসব দেশের সাথে, ফলাফল স্বরুপ হাজারো মানুষ চেনে গেছে আমাদের প্রাকৃতিক ঐতিহ্যে মার্ধুযমন্ডিত সিলেটকে। তারা জানতে চায় বিস্তারিত আর সেই জন্যই আমরা সিলেটকে সবারসামনে মেলে ধরেছিরাম – আমরা একটু একটু করে সামনে চলা শুরু করেছি – অর্থাৎ আমরা আমাদের কাজ শুরু করে দিয়েছি বিশ্ব দরবারে সিলেটকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রয়াস।

ব্যতিক্রমী এই অনূষ্ঠানের শুরুটা একটু অন্যরকম হলেও শেষটা ছিল অসাধারন, মন মাতানো সংগীতানুষ্ঠান আর নানা খাবারের আয়োজন । বলার অপেক্ষা রাখে না এমন একটি আনন্দমুখর পরিবেশ পেয়ে অতিথী এবং আয়োজক কারোই আনন্দ উদ্দিপনার কমতি ছিল না।

 
সংবাদটি পড়া হয়েছে 1107 বার
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

সব মেনু এক সাথে

 

ক্যালেন্ডার