আজকে

  • ৫ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২০শে আগস্ট, ২০১৮ ইং
  • ৮ই জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

লন্ডনে মুনতাসির মামুন: মনোজগত দখলে নিতে হবে আওয়ামী লীগকে

Published: সোমবার, জুলাই ৩০, ২০১৮ ১২:১১ পূর্বাহ্ণ    |     Modified: সোমবার, জুলাই ৩০, ২০১৮ ১২:১১ পূর্বাহ্ণ
 

লন্ডন: ঢাকা বিশ্ববিদযালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক এবং একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সহসভাপতি অধ্যাপক মুনতাসির মামুন বলেছেন, ৭৫ এর ১৫ই আগষ্টের পর ধারাবাহিক ইতিহাস বিকৃতির কারনে মুক্তিযুদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনা সম্পর্কে মানুষের মনোজগতে যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছিলো সেটি এখনও কাটেনি। আওয়ামী লীগ মানস জগত এখনও দখলে নিতে পারেনি।আর এ কারনেই আওয়ামী লীগ নেতৃত্বেরই একটি বড় গ্রুপ মৌলবাদী শক্তিকে হাতে রেখেই ক্ষমতায় যাওয়া ও ঠিকে থাকার চেষ্টা করে।

তিনি বলেন, রাজনীতির কৌশলী খেলায় ভোটে জিতে শুধু ক্ষমতা দখল করলেই চলবেনা, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের মানুষের মনোজগতও দখল করতে হবে আওয়ামী লীগকে।
শনিবার পূর্ব লন্ডনের বাংলাটাউনের একটি রেষ্টুরেন্টে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, যুক্তরাজ্য শাখার কর্মীদের সাথে এক আড্ডায় এমন মন্তব্য করেন মুনতাসির মামুন।
যুক্তরাজ্য নির্মূল কমিটির সভাপতি ইসহাক কাজলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই আড্ডায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক এই গবেষক বলেন, ‘মধ্যপন্থি আদর্শ নিয়ে জন্ম নেয়া আওয়ামী লীগকে মধ্য বামে নিয়ে এসে ধর্মনিরপেক্ষ, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের স্বপ্ন নিয়েই মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশের জন্ম দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। তাঁর সেই স্বপ্ন চীরতরে ধ্বংস করে দিতে পঁচাত্তর পরবর্তী সময়ে নীলনক্সা তৈরী করে মাটে নামে মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী শক্তি’। সেই শক্তির খপ্পর থেকে দেশকে সঠিক ট্রাকে নিয়ে আসতে বিগত ১০ বছর যাবত অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন শেখ হাসিনা, এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কন্যা যতই চেষ্টা করুন, আমাদের বুঝতে হবে বঙ্গবন্ধুর প্রজন্মের নেতা যেমন নেই এখন আওয়ামী লীগে, দলটিও নেই মধ্য বামে। পাশাপাশি বরবরের মতই দলটিতে এখনও আছে শক্তিশালী একটি প্রতিক্রিয়াশীল গ্রুপ। বাংলাদেশ এখন আর আগের অবস্থানে নেই এমন মন্তব্য করে মুনতাসির মামুন বলেন, বিদেশের বিমান বন্দরগুলোতে আমার দেশের সবুজ পাসপোর্টকে এখন আর তাচ্ছিল্যের চোখে দেখা হয়না। তিনি বলেন, আমি বলছিনা দেশ আমাদের স্বর্গরাজ্য হয়ে গিয়েছে, কিন্তু দেশ যে আর আগের অবস্থানে নেই সেটি
বলতে বাঁধা কোথায়? এসব কিছুই হয়েছে শেখ হাসিনার কারনে। তিনি বলেন, উন্নত বিশ্বের সাথে নিজ দেশের তুলনা করে যারা হতাশা প্রকাশ করেন, তাদের বুঝতে হবে, পঞ্চাশও হয়নি যে দেশের বয়স সেই দেশকে এখনই ৪শ বছরের গণতন্ত্রের শক্ত ভিতের উপর দাড়িয়ে থাকা ব্রিটেনের মত দেখতে চাইলে এমন হতাশা থাকবেই। আমাদের বুঝতে হবে এক হাজার বছর যুদ্ধ করে করেই ব্রিটেন আজকের অবস্থানে। আর আমরা যুদ্ধ করেছি মাত্র সাড়ে নয় মাস।
মুনতাসির মামুন বলেন, জীবনের ঝুঁকি মাথায় নিয়ে শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে এখন পর্যন্ত যতটুকু উচ্চতায় নিয়ে গেছেন, বঙ্গবন্ধুর মেয়ে বলেই এটি তাঁর দ্বারা সম্ভব হচ্ছে।
আড্ডায় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, যুক্তরাজ্য নির্মূল কমিটির উপদেষ্টা, বিলেতে মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, প্রবীন রাজনীতিক সুলতান শরীফ, নির্মূল কমিটি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আনসার আহমেদ উল্লা, যুক্তরাজ্য নির্মূল কমিটির সহসভাপতি মতিয়ার চৌধুরী, সহসাধারণ সম্পাদক জামাল খান, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য পুষ্পিতা গুপ্ত, রুবি হক, শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল ও জাসদ নেতা মুজিবুল হক মনি।

 
 
 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

 

ক্যালেন্ডার