আজকে

  • ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২২শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং
  • ১২ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবকে ক্যানারি ওয়ার্ফ-এর সংবর্ধনা:প্রেসিডেন্ট, সেক্রেটারী ও ট্রেজারারকে সম্মাননা ক্রেস্ট

Published: বুধবার, জুলাই ৪, ২০১৮ ৯:৩০ অপরাহ্ণ    |     Modified: শুক্রবার, জুলাই ২৭, ২০১৮ ১১:০৩ অপরাহ্ণ
 

ইউকেবিডি টাইমস ডেস্কঃলন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের ২৫ বছর পূর্তির মুহুর্তে কমিউনিটিতে এর অবদানের জন্য সম্মান জানিয়েছে লন্ডনের শীর্ষ ফাইনানশিয়াল সিটি ক্যানারি ওয়ার্ফ। ক্লাব নেতৃবৃন্দকে ক্রেস্ট প্রদান করে এর ডিরেক্টররা বলেছেন, ক্যানারী ওয়ার্ফ তার অবস্থান থেকে গত ত্রিশ বছরে স্থানীয় কমিউনিটির কল্যানে অনেক সামাজিক ভূমিকা পালন করেছে। গত ৮ বছরে শুধু কমিউনিটি প্রজেক্টে অনুদান দিয়েছেন ১৫ মিলিয়ন পাউন্ড। প্রেস ক্লাবও সামান ভাবে সক্রিয় ভূমিকা রাখছে এবং সবাই মিলে সামগ্রিক উন্নতিতে ঐক্যবন্ধ ভাবে কাজ করা উচিত।
এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ক্যানারি ওয়ার্ফের এমডি হাওয়ার ডোভার। চেষ্টা করে সাংবাদিক হয়ে উঠতে পারেননি, এই দু:খের কথা উল্লেখ করে তিনি সামগ্রিক ভাবে বাংলা মিডিয়ার প্রশংসা করেন। এসময় কোম্পানী ডিরেক্টর ম্যাট মেয়ার বলেন, লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব সম্মান জানিয়ে আমরা আনন্দিত।


ক্যানারিওয়ার্ফের এসোসিয়েট ডিরেক্টর জাকির খানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে ক্লাব প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নাহাস পাশা, সেক্রেটারী মুহাম্মদ জুবায়ের ও ট্রেজারার আ স মাসুমকে একটি করে বিশেষ সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। ক্রেস্ট দেয়া হয় লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের নির্বাহী কমিটিকেও।
হাওয়া ডোভার বলেন, বৃটিশ অর্থনীতিতে ক্যানারিওয়ার্ফের অবদান বছরে ৪০ বিলিয়ন পাউন্ড। বেশ কিছু ইউরোপিয় হেড কোয়াটারসহ বিশ্বের ১৫০টি শীর্ষ পর্যায়ের কোম্পানীর প্রধান অফিস এখানেই। ১২০ হাজার এম্পপ্লিয়র মধ্যে ১২ হাজার স্থানীয় টাওয়ার হ্যামলেটসের।
ক্যানারিওয়াফ-এর ত্রিশ তলায় কোম্পানী বোড রুমে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সম্মানে অনুষ্ঠিত হয় এই সবংর্ধনায় জাকির খান বলেন, স্থানীয় বারার ইয়ুথ, স্পোর্টস ও থার্ড সেক্টরে গত ৯ বছরে আমরা প্রায় ১৫মিলিয়ন পাউন্ডের অনুদান দিয়েছি এবং সব সময় কমিউনিটির জন্য কাজ করার চেষ্টা করছি। প্রেস ক্লাবের জন্য আয়োজন তারই অংশ। আর প্রেস ক্লাবও কমিউনিটির কল্যানে অনন্য ভূমিকা রাখছে।

সম্মাননা ক্রেস্ট গ্রহন করে প্রেস ক্লাব প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নাহাস পাশা বলেন,কেনারি ওয়ার্ফ স্থানীয় তরুনদের কর্মসংস্থানে গুরুত্ব দিচ্ছে-এটা আশার কথা। আমি চাই বেশী বেশী বৃটিশ বাংলাদেশী তরুন এখানে স্থান পাবে।
প্রেস ক্লাব সেক্রেটারী মুহাম্মদ জুবায়ের বলেন, ক্যানারি ওয়ার্ফের উুচ ভবনে আসা-যাওয়াই বড় কথা নয়। বড় কথা হচ্ছে এই প্রতিষ্ঠান কমিউনিটিকে বিবেচনায় রাখছে। বৃহত্তর কমিউনিটি হিসেবে বৃটিশ বাংলাদেশীকে গুরুত্ব দিচ্ছে। আর প্রেস ক্লাবকে সম্মান জানানো মানেও বাংলা মিডিয়াকে সম্মান জানানো।
সবংর্ধনা ও পরে অনুষ্ঠিত ডিনারে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সাবেক কয়েকজন নেতা, সিনিয়র মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ও ক্লাবের প্রায় সকল নির্বাহী সদস্য উপস্থিত ছিলেন। আরো বক্তব্য রাখেন সাবেক প্রেসিডেন্ট মুহিব চৌধুরী, দুই সাবেক সেক্রেটারী যথাক্রমে নজরুল ইসলাম বাসন ও আবদুস সাত্তার।

 
 
 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

 

ক্যালেন্ডার