আজকে

  • ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
  • ৮ই মুহাররম, ১৪৪০ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

মাঠে ফ্রান্সের কাছে হারছে আর্জেন্টিনা গ্যালারিতে ফ্রেঞ্চ কিসে ব্যস্ত ম্যরাডোনা!

Published: সোমবার, জুলাই ২, ২০১৮ ৭:০৪ পূর্বাহ্ণ    |     Modified: সোমবার, জুলাই ২, ২০১৮ ৭:০৪ পূর্বাহ্ণ
 
আর্জেন্টিনার দিয়েগো ম্যারাডোনা! গোটা বিশ্বজুরেই এই ফুটবল তারকার অগণিত ভক্ত। খেলোয়ারি জীবনে নিজের শৈল্পিক খেলার জন্য যেমন ছিলেন আলোচনায় আজো তাই থাকেন তবে সেটা রঙ্গিন মেজাজের জন্য।
চলতি বিশ্বকাপে ম্যারাডোনাকে একজন অ্যাম্বাসেডর হিসেবে রাশিয়ায় পাঠিয়েছে ফিফা। এ জন্য প্রতি ম্যাচে ১০ হাজার পাউন্ড দিচ্ছে ফিফা। শুভেচ্ছাদূত হিসেবে ম্যারাডোনার উচিত ছিল মাঠে তার ভূমিকা ফুটিয়ে তোলা। কিন্তু তিনি তা করেননি। উল্টা নিয়মবিরুদ্ধ আচরন করে বেশ কয়েকবার সমালোচনা ও ট্রোলের শিকার হয়েছেন।
বিশ্বকাপকে ঘোষণা করা হয়েছে ধুমপানমুক্ত। কিন্তু তিনি সেই ঘোষণার প্রতি তোয়াক্কাই করেননি। ম্যারাডোনাকে স্টেডিয়ামের ভিতরে ধুমপান করতে দেখা গেছে । ব্যক্তিগত একটি জেটে তাকে মদ পান করতেও দেখা গেছে! নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে লিওনেল মেসি প্রথম গোল করার পর তিনি দৈত্যের মতো করে তা উদযাপন করেছেন বটে তবে এর কয়েক মিনিটের মধ্যে ম্যারাডোনাকে গভীর ঘুমে ঘুমিয়ে পড়তে দেখা গেছে! আবার ওই ম্যাচ জয়ের পর ম্যারাডোনাকে দেখা যায় মধ্যমা প্রদর্শন করে অশালীন ইঙ্গিত করতে।
এদিকে শনিবার কাজান এরিনা স্টেডিয়ামে রাশিয়া বিশ্বকাপের নক আউট রাউন্ডের ম্যাচে মুখোমুখি হয় আর্জেন্টিনা-ফ্রান্স। সেই মাঠে উপস্থিত ছিলেন কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনা। খেলার শুরুতে ম্যারাডোনাকে বেশ আমুদে মেজাজে দেখা গিয়েছিল এবং এসময় গ্যালারিতে বান্ধবী রোসিও ওলিভাকে ফ্রেঞ্চ কিস দিতে দেখা যায় তাকে। এসময় ব্রাজিলের ফুটবল তারকা রোনালদো তখন তার পাশে বসা ছিল। কিন্তু ম্যারাডোনা সেদিকে ভ্রুক্ষেপ না করে পার্টনার ওলিভাকে চুমুতে মগ্ন ছিলেন।ম্যারাডোনার চেয়ে ৩০ বছরের ছোট ওলিভা।
এদিকে, আর্জেন্টিনা-ফ্রান্সের রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে (৯৩ মিনিটে) আর্জেন্টিনার হয়ে ব্যবধান কমানো গোল করেন সার্জিও আগুয়েরো। কিন্তু ততোক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেল। ৪-৩ গোলের ব্যবধানে হেরে বিদায় নিলো আর্জেন্টিনা। ফরাসিদের জয়ের অন্যতম নায়ক ১৯ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপ্পে। ম্যাচের ৬৪ ও ৬৮ মিনিটে করা দুই গোলে শুধু দল জেতানোই নয়, বরং রেকর্ড বইয়েও পেলের পাশে নাম লিখিয়েছেন তিনি। দ্যা সান।
 
 
 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

 

ক্যালেন্ডার