আজকে

  • ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং
  • ১০ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

কোটা সংস্কার:গ্রেপ্তারের আগে ফেসবুক লাইভে রাশেদ(ভিডিও)

Published: রবিবার, জুলাই ১, ২০১৮ ৫:৪৮ অপরাহ্ণ    |     Modified: শুক্রবার, জুলাই ২৭, ২০১৮ ১১:০৪ অপরাহ্ণ
 

ঢাকা থেকে সংবাদদাতা:বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খানকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ। এর আগে তিনি এক ফেসবুক লাইভে ডিবি পুলিশ তাকে তুলে নিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। লাইভে রাশেদ বলেন, আমাকে তুলে নিয়ে যাচ্ছে। সবাই আমাকে বাঁচান। মিরপুর ১৪ ভাষানটেকের মজুমদারের মোড়ের বাসায় আছি। সবাই রাজপথে নেমে যান। সবাই আমাকে বাঁচান। আমাকে তুলে নিয়ে যাচ্ছে। ডিবি আমাকে তুলে নিয়ে যাচ্ছে। আমাকে বাঁচান। সবাই ভিডিও শেয়ার দেন। সারাদেশে ছড়িয়ে দিন ভিডিওটি। বাসার গেট বন্ধ করে দিয়েছে। রাজপথে নেমে সবাই আমাকে বাঁচান। আমাকে ধাওয়া দিয়েছিলো। আমি গলির মধ্য দিয়ে এ বাসায় আসি। এসময় তিনি হাতের কনুইতে পড়ে ছিলে যাওয়ার অংশ দেখান। বারবার বাসার লোকজনকে জিজ্ঞেস করছিলেন বাসার নম্বর কত? তারা জানান, ১২ নম্বর। এরপর পুরো ঠিকানা আবার বলে রাশেদ নিজেকে বাঁচানোর আকুতি করেন। তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা আমাকে বাঁচান। আমাকে তুলে নিতে আসছে। আমাকে ধাওয়া দিয়েছে। দৌঁড়ে পালিয়েছি। সবাই ভিডিওটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দেন। আমাকে মেরে ফেলে দিবে। গুম করে ফেলে দিবে। সবাই আমাকে বাঁচান। ১২ নম্বর বাসায় আটক আছি। সব সাংবাদিকদের জানিয়ে দিন। সবাই আমাকে বাঁচান। সারা বাংলাদেশের সবাইকে জানান। আমি রুমের মধ্যে আটক আছি। আমাকে এখন তুলে নিয়ে যাবে। বাসার লোকজন দরজা খুলতে চাইলে তিনি না খোলার জন্য আকুতি মিনতি করেন। দরজা বন্ধ করে দেন। বাসার লোকজন তাকে জিজ্ঞেস করেন কারা আসছে। তখন রাশেদ বলেন, ডিবি পুলিশ। কিছুক্ষণ পরই গেট ধাক্কা দেয়ার শব্দ শোনা যায়। তখন রাশেদ বলেন, গেট ধাক্কা দিচ্ছে। আমাকে তুলে নিতে আসছে। আমাকে বাঁচান।

 
 
 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

 

ক্যালেন্ডার