আজকে

  • ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
  • ৮ই মুহাররম, ১৪৪০ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

বিসিবি পরিচালক আকরামের ‘মিথ্যাচারে’ ক্ষুব্ধ বুলবুল!

Published: শুক্রবার, মার্চ ২, ২০১৮ ২:২৪ অপরাহ্ণ    |     Modified: শুক্রবার, মার্চ ২, ২০১৮ ২:২৪ অপরাহ্ণ
 

খেলাধুলা ডেস্ক:

জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ নির্বাচন নিয়ে চলমান বিতর্কের মাঝে নতুন বিতর্কের জন্ম দিলেন সাবেক অধিনায়ক এবং বর্তমানে বিসিবির পরিচালক আকরাম খান। দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি পত্রিকায় দেওয়া সাক্ষাতকারে তিনি বলেছিলেন জাতীয় দলের আরেক সাবেক অধিনায়ক তথা বাংলাদেশের অভিষেক টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান আমিনুল ইসলাম বুলবুলকে নিয়ে। আকরামের সেই বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সোশ্যাল সাইটে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন বুলবুল।

জাতীয় দলের কোচ নির্বাচন নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে আকরাম খান বলেছিলেন, সাবেক অধিনায়ক আমিনুল ইসলাম বুলবুলকে নাকি অনেকবার জাতীয় দলের প্রধান কোচ হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। তিনি এতে সম্মতি দেননি। আকরামের এই বক্তব্যকে অস্বীকার করে সোশ্যাল সাইট ফেসবুকে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে একে ‘মিথ্যাচার’ হিসেবে অভিহিত করেছেন বুলবুল।

স্ট্যাটাসটিতে বুলবুল লিখেছেন, ‘এমন খবর আমি ক্ষুব্ধ, বিস্মিত! আমি কখনই বিসিবির পক্ষ থেকে যে কোনো লেভেলে কোচিংয়ের জন্য আনুষ্ঠানিক কোনো অফার পাইনি। এমনকী গত বিপিএলে (পঞ্চম আসর) আমি আমার নামটি পর্যন্ত স্টেডিয়ামের ক্যাপ্টেন বক্সে দেখতে পাইনি।’

উল্লেখ্য, মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে কোনো ম্যাচ হলে সাবেক অধিনায়কদের জন্য ক্যাপ্টেন বক্সের ২৬টা টিকিট বরাদ্দ থাকে। কিন্তু গত বিপিএলে বুলবুল রহস্যজনক কারণেই এই সুযোগ পাননি। তবে বিপিএলের অনেক ফ্র্যাঞ্চাইজি তাকে কোচ হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন বলে জানিয়ছেন বুলবুল।

স্ট্যাটাসে ক্ষুব্ধ বুলবুল আরও লিখেছেন, ‘গত কয়েক আসরে আমি বিপিএলের বেশ কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব পেয়েছিলাম। তাদেরকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই। আমি তাদের প্রস্তাব বিনয়ের সাথেই ফিরিয়ে দিয়েছিলাম। কারণ, এক মাসের কোচ হওয়ার জন্য এখানকার (অস্ট্রেলিয়া) স্থায়ী চাকরি ছাড়া আমার পক্ষে সম্ভব নয়।’

শেষে বুলবুল লিখেছেন ‘আকরাম যদি আমাকে কোচ হওয়ার প্রস্তাব দিয়েই থাকেন, সেটা কি তিনি বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি কিংবা তার বিপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে আলোচনা করে দিয়েছেন? বিসিবির কাছ থেকে কোনো প্রস্তাব না পেয়ে আমি খুব সুখেই আছি। তবে এ ধরণের মিথ্যাচারে আমি চরম ক্ষুব্ধ। দয়া করে নিজের কথা এবং কাজে নৈতিক হয়ে উঠুন।’

কালের কন্ঠ

 
 
 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

 

ক্যালেন্ডার