আজকে

  • ১০ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২৪শে জুন, ২০১৮ ইং
  • ৮ই শাওয়াল, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

ঠান্ডায় জবুথবু ইউরোপ

Published: বৃহস্পতিবার, মার্চ ১, ২০১৮ ১২:১৪ অপরাহ্ণ    |     Modified: শুক্রবার, মার্চ ২, ২০১৮ ৫:১৩ পূর্বাহ্ণ
 

ইউকেবিডি টাইমসডেস্কঃ উত্তর মেরু থেকে আসা হার্টমুট নামের শৈত্যপ্রবাহে ইউরোপের জনজীবন বিপর্যস্ত। গরম টুপি, হাতমোজা, মাফলার জড়িয়ে বাইরে বের হয়েও প্রচণ্ড ঠান্ডা থেকে রক্ষা পাওয়া কঠিন হয়ে পড়ছে। এরই মধ্যে ১৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এদের বেশির ভাগই গৃহহীন।

আবহাওয়াবিদেরা আশার কথা শুনিয়েছেন, শনিবার থেকে এই শৈত্যপ্রবাহের তেজ কমতে থাকবে।

গত সোমবার থেকে আজ বুধবার পরপর তৃতীয় দিনের মতো মধ্য ও উত্তর ইউরোপের নানা দেশে রাতের তাপমাত্রা হিমাঙ্কের ২৫ ডিগ্রি নিচে এবং দিনের তাপমাত্রাও হিমাঙ্কের ১০ থেকে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে আসে। আলপাইন পর্বতমালার সমতলের দেশগুলোতে রাতে তাপমাত্রা কমে হিমাঙ্কের ৩০ ডিগ্রি নিচে পৌঁছেছে।

উত্তর ও মধ্য ইউরোপের মতো দক্ষিণ ইউরোপের দেশ ইতালি এবং গ্রিসেও তুষারপাত হয়েছে। প্রচণ্ড তুষারপাতে ইউরোপের নানা দেশে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটছে, কোনো কোনো মহাসড়কে প্রায় ৩০ সেন্টিমিটার পুরু তুষার পড়েছে। এতে যানবাহন চলাচলে অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে। ইউরোপের অনেক বিমানবন্দর সময়ভেদে বন্ধ রাখা হচ্ছে। অনেক জায়গায় নৌচলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে। বিভিন্ন স্থানে নদী ও লেকের উপরিভাগ পানি জমে বরফ হয়ে গেছে।

বিভিন্ন শহরের পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবীরা গৃহহীনদের বিশেষ আশ্রয়ে পৌঁছে দিচ্ছেন।

প্রচণ্ড ঠান্ডার কারণে অস্ট্রিয়ার পুলিশ মুখ ঢেকে বা নেকাব পরে চলাফেরায় নিষেধাজ্ঞা সাময়িকভাবে তুলে নিয়েছে। বিষয়টি ইউরোপে এখন মুখরোচক খবর। ২০১৭ সালের অক্টোবর থেকে অস্ট্রিয়ায় মুখ ঢেকে বা নেকাব ও বোরকা পরে চলাফেরায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। এবারের ঠান্ডায় ২৮ বছরের একজন নারী মনোবিজ্ঞানীকে মাফলার জড়িয়ে মুখ ঢেকে চলার অপরাধে ৫০ ইউরো জরিমানা করা হয়। পরে আদালতে তিনি মামলা ঠুকে এই আইন সাময়িকভাবে রদ করতে বাধ্য করেন।

(প্রথম আলো)
 
 
 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

 

ক্যালেন্ডার