আজকে

  • ৬ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২১শে আগস্ট, ২০১৮ ইং
  • ৯ই জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনায় ৭ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী বহিষ্কার

Published: বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৮ ১:১৯ পূর্বাহ্ণ    |     Modified: বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৮ ১:১৯ পূর্বাহ্ণ
 

শিক্ষাঙ্গন ডেস্ক:

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের শিক্ষার্থী এহসান রফিককে মারধরের ঘটনায় ছাত্রলীগের সাত নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এ ছাড়া পালি অ্যান্ড বুড্ডিস্ট স্টাডিজ বিভাগের এক ছাত্রীকে নিয়ে ফেসবুকে অশালীন মন্তব্যের দায়ে তাঁর পাঁচ সহপাঠীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সিন্ডিকেট সদস্য এ এস এম মাকসুদ কামাল এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এহসান রফিককে মারধরের ঘটনায় বহিষ্কৃতরা হলেন—সলিমুল্লাহ মুসলিম হল শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আরিফুল ইসলাম (আইইআর), উপপ্রশিক্ষণবিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান হিমেল (উর্দু), সহসম্পাদক ওমর ফারুক (মার্কেটিং), রুহুল আমিন ব্যাপারী (গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা), ফারদিন আহমেদ মুগ্ধ (লোকপ্রশাসন), সদস্য সামিউল ইসলাম সামী (সমাজবিজ্ঞান) ও আহসান উল্লাহ (দর্শন)। তাঁদের মধ্যে ওমর ফারুককে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। এ ছাড়া রুহুল আমিন, সামিউল ইসলাম সামী, আহসান উল্লাহ, মেহেদী হিমেল ও ফারদিনকে দুই বছর এবং আরিফুল ইসলামকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

গত ৬ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্যোগবিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী এহসান রফিককে মারধর করে হল শাখা ছাত্রলীগের বেশ কিছু নেতাকর্মী। এ ঘটনার হল প্রশাসনের গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে বহিষ্কারের সুপারিশ করে বিশ্ববিদ্যালয় শৃঙ্খলা কমিটি। গতকাল ওই সুপারিশে অনুমোদন দেয় সিন্ডিকেট।

অশালীন মন্তব্যে বহিষ্কার পাঁচ : এদিকে পালি অ্যান্ড বুড্ডিস্ট স্টাডিজ বিভাগের এক ছাত্রীকে নিয়ে ফেসবুকে অশালীন মন্তব্যের দায়ে তাঁর পাঁচ সহপাঠী বহিষ্কৃত হয়েছেন। বহিষ্কৃতরা হলেন—দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আশিকুর রহমান, হযরত আলী, মোস্তাকিম আল মামুন পিয়াল, মো. জহুরুল ইসলাম ও রাহাদ আহমেদ।

ভোটার তালিকা প্রণয়নের নির্দেশ : ডাকসু নির্বাচনের লক্ষ্যে আগামী মে মাসের মধ্যে নির্ভুল ভোটার তালিকা প্রণয়নের জন্য হল প্রাধ্যক্ষদের নির্দেশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিন্ডিকেট। এ ছাড়া  আগামী বছরের ৩০ মার্চের মধ্যে ডাকসু নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সিন্ডিকেটে আলোচনা করা হয়।

কালের কন্ঠ

 
 
 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

 

ক্যালেন্ডার