আজকে

  • ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
  • ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং
  • ২রা জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

চট্টগ্রামে পরীক্ষার আধাঘণ্টা আগে পদার্থ বিজ্ঞানের প্রশ্নফাঁস

Published: মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮ ৭:৩৩ পূর্বাহ্ণ    |     Modified: মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮ ৭:৩৩ পূর্বাহ্ণ
 

চট্টগ্রামে এসএসসি পরীক্ষা শুরুর আধাঘণ্টা আগে পদার্থ বিজ্ঞান বিষয়ের প্রশ্নফাঁস হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) পরীক্ষার শুরুর আধঘণ্টা আগে চট্টগ্রাম পটিয়া আইডিয়াল স্কুলে ৫০ শিক্ষার্থীর কাছে পাওয়া প্রশ্নের সঙ্গে মূল প্রশ্ন হুবহু মিলে গেছে।

পটিয়া থানার ওসি শেখ মো. নেয়ামত উল্লাহ বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করে জানান, মঙ্গলবার সকালে পরীক্ষা শুরুর আগে ফাঁস হওয়া প্রশ্নের খবর পাওয়া যায়। পরে ফাঁস হওয়া প্রশ্নের সঙ্গে মিলিয়ে দেখা যায় মূল প্রশ্ন হুবহু মিলে গেছে। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।

এসএসসি পরীক্ষা ২০১৮ সালের রুটিন অনুসারে দেশজুড়ে পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়), বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা, ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং পরীক্ষা এক যোগে অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এবার এসএসসিতে প্রথম দিন থেকে প্রশ্নফাঁস হচ্ছে। প্রশ্ন ফাঁসকারীদের ধরিয়ে দিলে শিক্ষামন্ত্রীর পুরস্কার ঘোষণার পরও তা থেমে নেই। প্রশ্নফাঁস নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এ যাবত কাল বেশ কয়েকজনকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

ইংরেজি দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা শুরুর পৌনে এক ঘণ্টা বা আধা ঘণ্টা আগে প্রশ্নফাঁস হলেও, এরপর অনুষ্ঠিত হওয়া ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা এবং গণিতের প্রশ্নফাঁস হয়েছে যথাক্রমে এক ও দেড় ঘণ্টা আগে।

চলমান এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সকাল ৮টা থেকে সাড়ে দশটা পর্যন্ত ইন্টারনেটের গতি সীমিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। তবে ১ দিন গতি সীমিত রেখে পরে আবার এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হয়।

এদিকে প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে পর্যায়ক্রেম নৈবক্তিক প্রশ্ন তুলে দেয়ার চিন্তা করছে সরকার। সাংবাদিকদের এমনট জানিয়েছেন শিক্ষাপ্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী। তবে মন্ত্রণালয়, বোর্ড আর পুলিশের কাছে তথ্য দিয়েও বন্ধ করা যাচ্ছে না প্রশ্নফাঁস।

ফেইসবুক পেইজে- গ্রুপে চলছে কার আগে কে প্রশ্ন দিতে পারে, তার প্রতিযোগিতা। আগের পরীক্ষার প্রশ্ন সবার আগে দিয়েছে, এমন প্রমাণ দেখিয়ে দিনরাত অসংখ্য আইডি থেকে বিজ্ঞাপন দেওয়া হচ্ছে প্রশ্নফাঁসের।

প্রশ্নফাঁস করে একটি চক্র অভিভাবকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে বিশাল অংকের টাকা। পাশাপাশি পড়ালেখা বাদ দিয়ে ফাঁস হওয়া প্রশ্নের দিকে ছুটছেন সাধারণ মানুষ।

 
 
 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

 

ক্যালেন্ডার