আজকে

  • ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ১৯শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং
  • ৯ই সফর, ১৪৪০ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

মৌলভীবাজারের কুশিয়ারা নদীর তীরে ঐতিহ্যবাহী মাছের মেলা শুরু

Published: শনিবার, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮ ৫:৪৮ অপরাহ্ণ    |     Modified: শনিবার, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮ ৫:৪৮ অপরাহ্ণ
 

মৌলভীবাজার  প্রতিনিধিঃ   মৌলভীবাজারের শেরপুরে কুশিয়ারা নদীর তীরে প্রায় ২০০ বছরের ঐতিহ্যবাহী ৩ দিন ব্যাপী মাছের মেলা শুরু হয়েছে। শনিবার (১৩ জানুয়ারি) রাত থেকে শুরু হওয়া এ মেলা তিন দিনব্যাপী চলবে।পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে শেরপুরে কুশিয়ারা নদীর তীরে প্রায় দুইশ বছর আগে থেকে মাছের মেলাটি শুরু হলেও এটি এখন সার্বজনীন উৎসবে রূপ নিয়েছে। সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ এই তিন জেলার মিলন স্থল শেরপুর এলাকায় বসে মাছের মেলা। বিভিন্ন স্থান থেকে মাছ নিতে আসা ক্রেতারা জানান দেশীয় প্রজাতির টাটকা মাছ পাওয়ায় তারা কিনতে আসেন এ মেলায়।এবারের মেলায় মেলায় হাকালুকি, টাঙ্গুয়া, হাইল হাওর ছাড়াও সুরমা ও কুশিয়ারা এবং মেঘনার ছোটো বড় নানা জাতের অসংখ্য মাছ এসেছে। এর মধ্যে রয়েছে- ৬০ থেকে ৯০কেজি ওজনের বাঘ মাছ। এছাড়াও রয়েছে- আইঢ়, চিতল, রুই, কাতল, মৃগেল, কালো বাউস, বোয়ালসহ নানা জাতের মাছ। মৌলভীবাজার জেলা শহর থেকে প্রায় ২২ কিলোমিটার দূরে শেরপুরে কুশিয়ারা নদীর তীরে ঐতিহ্যবাহী এ মাছের মেলা বসে পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে। সিলেট, মৌলভীবাজার, সুনামগঞ্জ ও হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকাররা ছোট-বড় নানা জাতের মাছ নিয়ে এসেছেন।মৎস ব্যবসায়ী কবির মিয়া জানান, হাকালুকি হাওড় থেকে মাছ নিয়ে মেলায় এসেছেন তিনি। তিনি আরো জানান মেলার ১৫/২০ দিন পূর্ব থেকেই মেলাকে উদ্দেশ্য করে মাছ সংগ্রহের কাজ করতে থাকেন। মেলার জন্য একটি বছর অপেক্ষা করেন মাছ ব্যবসায়ীরা।এটি যদিও মাছের মেলা নামে পরিচিত তথাপি মাছ ছাড়াও বিভিন্ন পসরার কয়েক হাজার দোকান বসে। মেলায় মাছ ছাড়াও ফার্নিচার, গৃহস্থলী সামগ্রী, খেলনা সামগ্রী, নানা জাতের দেশীয় খাবারের দোকানসহ গ্রামীণ ঐতিহ্যের দোকানও স্থান পায়। এছাড়া শিশুসহ সব শ্রেণীর মানুষকে মাতিয়ে তোলার জন্য রয়েছে বায়স্কোপ ও চড়কি খেলা। মেলাকে ঘিরে কিছু অসাধু চক্র পূর্বে যেরকম পুতুল নাচের নামে অশ্লীল নাচ, গান ও জুয়ার আয়োজন করত তা বর্তমান প্রশাসনের কঠোর পদক্ষেপে বন্ধ হয়ে গেছে।

 
 
 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

 

ক্যালেন্ডার