আজকে

  • ৫ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২০শে আগস্ট, ২০১৮ ইং
  • ৮ই জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

চেয়ারম্যান আহমদ জুবায়ের-এর সাথে প্রবাসী এলাকাবাসীর মতবিনিময় ‘শাহবাজপুর উপজেলা’ প্রতিষ্ঠার দাবী

Published: বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ৩০, ২০১৭ ৩:১০ পূর্বাহ্ণ    |     Modified: বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ৩০, ২০১৭ ৩:১০ পূর্বাহ্ণ
 

ইউকেবিডি টাইমস ডেস্কঃ লন্ডন সফররত বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আহমদ জুবায়ের লিটন এর সম্মানে যুক্তরাজ্য প্রবাসী শাহবাজপুরবাসীর এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৩ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পূর্ব লন্ডনের ক্যানারী ওয়ার্ফে সাপ্তাহিক দেশ কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। শাহবাজপুরের বাসিন্দা কমিউনিটি নেতা মঞ্জুর রেজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাপ্তাহিক দেশ সম্পাদক তাইসির মাহমুদ এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় এলাকার শিক্ষা, চিকিৎসা ও অবকাঠামো উন্নয়নে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এতে বক্তব্য রাখেন মোঃ শামসুদ্দিন, মোঃ বদরুল ইসলাম, হাফিজ মোঃ আব্দুল জলিল, মোঃ নাসির উদ্দিন, মোঃ সালাহ উদ্দিন সুমন, ফুহাদ আহমদ ফরহাদ, মোহাম্মদ রহিম উদ্দিন ও আব্দুর রজ্জাক। সভায় বক্তারা বলেন, সীমান্তিক জনপদ হওয়ায় শাহবাজপুর অঞ্চল যুগযুগ ধরে অবহেলিত। দেশ স্বাধীনের পর এলাকায় উল্লেখযোগ্য উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। যা হয়েছে তা ধারাবাহিক উন্নয়নেরই অংশ। তাই এলাকার সামগ্রিক উন্নয়নে বাড়তি বরাদ্দ দিতে স্থানীয় সংসদ সদস্য হুইপ মোঃ শাহাব উদ্দিনের প্রতি জোর দাবী জানানো হয়।
বক্তারা বলেন, ভূমি রেজিস্ট্রিসহ জরুরি কাজে উত্তর শাহবাজপুর, দক্ষিণ শাহবাজপুর ও নিজ বাহাদুরপুর ইউনিয়নবাসীকে নিত্যদিন বড়লেখা উপজেলা সদরে যাতায়াত করতে হয়। এতে করে মানুষ বিভিন্নভাবে ভোগান্তির শিকার হয়ে থাকেন। তাই এলাকাবাসীকে দুর্ভোগমুক্ত করতে শাহবাজপুরকে একটি স্বয়ংসম্পুর্ণ উপজেলা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা এখন সময়ের দাবী। উপজেলা প্রতিষ্ঠা হলে এলকাবাসী যাবতীয় দাপ্তরিক কাজ এখানেই সম্পাদন করতে পারবেন। মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। এছাড়া যেহেতু কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইন ভারত পর্যন্ত চালু হচ্ছে তাই শাহবাজপুর এলাকা এখন আরো গুরুত্বপুর্ণ হয়ে ওঠবে। তাই সবকিছু বিবেচনায় শাহবাজপুর উপজেলা প্রতিষ্ঠা সম্পুর্ণ যৌক্তিক। তাই শাহবাজপুর উপজেলা প্রতিষ্ঠার দাবীতে যুক্তরাজ্যে ও এলাকায় আন্দোলন গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। বক্তারা বলেন, শাহবাজপুর বাজারের অদূরে একটি হাসপাতাল রয়েছে। কিন্তু এটি নামেই হাসপাতাল। কাজের বেলা কিছুই নেই। ডাক্তার নেই। মুমূর্ষু রোগী নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা পাওয়া যায় না। তাই এই হাসপাতালে পুর্ণাঙ্গ চিকিৎসা চালু করতে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানানো হয়। সভায় বলা হয়, ভাটাউছি গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা আরকান আলীর ইন্তেকালের পর শাহবাজপুর বাজারে আয়োজিত এক শোকসভায় স্থানীয় এমপি হুইপ মোঃ শাহাব উদ্দিন ‘ভাটাউছি-ভবানীপুর’ রাস্তাটি তাঁর নামে নামকরণের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। কিন্তু দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও এ ব্যাপারে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। তাই অনতিবিলম্বে মুক্তিযোদ্ধা আরকান আলীর নামে রাস্তাটির নামকরণ করতে প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু করতে চেয়ারম্যান আহমদ জুবায়ের লিটনের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

সভায় বলা হয়, শাহবাজপুরের অধিকাংশ গ্রামই এখন বিদ্যুতায়িত হয়ে গেছে। এখন প্রয়োজন এলাকাকে গ্যাস সংযোগের আওতায় নিয়ে আসা। তাই এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। উত্তর শাহবাজপুর দাখিল মাদ্রাসা এলাকার একমাত্র ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি সমস্যার অতলান্তে হাবুডুবু খাচ্ছে। তিন শতাধিক ছাত্রছাত্রী এই মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে। কিন্তু মাদ্রাসার শিক্ষকরা পাঠদান করে বিনা বেতনে। প্রবাসীদের সাহায্যের উপর নির্ভর থাকতে হয়। শিক্ষকদের হাজার হাজার টাকা বেতন বকেয়া পড়ে আছে। তাই মাদ্রাসাটি এমপিওভুক্ত করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চেয়ারম্যান আহমদ জুবায়ের এর প্রতি আহবান জানানো হয়। স্থানীয় শাহবাজপুর পুলিশ ফাঁড়িকে দালালমুক্ত রাখা এবং এলাকায় রাতের বেলা মদ্যপায়ী মাতালদের ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবী জানানো হয়। বক্তারা বলেন, শাহবাজপুরের মানুষ অত্যন্ত নিরীহ ও শান্তিপ্রিয়। কিন্তু একশ্রেণীর টাউট-বাটপার এলাকার শান্তি শৃংখলায় বিঘœ সৃষ্টি করছে। বিশেষকরে রাতের বেলা মদ্যপান করে মাতাল হয়ে ঘুরাফেরা করে বাজারের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিনষ্ট করে। তারা এলাকার সুনাম ক্ষুন্ন করছে। প্রবাসী এলাকাবাসী এসব মদ্যপায়ীর বিরুদ্ধে সামাজিক শাস্তিমুলক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানান। বক্তারা বলেন, উত্তর শাহবাজপুরের শতশত মানুষ প্রতিদিন সোনাই নদী পার হয়ে তাজপুর, আবঙ্গি হয়ে বিয়ানীবাজার ও সিলেটে যাতায়াত করে থাকেন। কিন্তু সোনাই নদীর উপর ব্রীজ না থাকায় খেয়া নৌকার উপর মানুষকে নির্ভর করতে হয়। শাহবাজপুর থেকে বিয়ানীবাজার অভিমুখে সরাসরি যানবাহন চলাচল করতে পারে না। তাই এই দুই এলাকাবাসীর মধ্যে যোগাযোগ ক্ষেত্রে সেতুবন্ধন রচনা করতে অবিলম্বে সোনাই নদীর ভাটাউছি-তাজপুর অংশে একটি সেতু নির্মাণের জোর দাবী জানানো হয়। সেতু নির্মাণের দাবী স্থানীয় সংসদ সদস্য মোঃ শাহাব উদ্দিন-এর কছে উত্থাপন করতে চেয়ারম্যান আহমদ জুবায়ের লিটনের প্রতি আহবান জানানো হয় ।

 
 
 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

 

ক্যালেন্ডার